বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, হামলার শিকার পর্যটকেরা পরিবার নিয়ে ঢাকা থেকে জাফলংয়ে বেড়াতে এসেছিলেন। জাফলংয়ে আসার পর প্রবেশ টিকিটের টাকা পরিশোধ করতে গিয়ে স্বেচ্ছাসেবকদের সঙ্গে তাঁদের কথা-কাটাকাটি হয়। এর একপর্যায়ে স্বেচ্ছাসেবকেরা বাঁশ ও লাঠি দিয়ে ওই পর্যটকদের মারধর করেন।

হামলার ঘটনার সময় ধারণ করা একটি ভিডিও সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ছড়িয়ে পড়েছে। ওই ভিডিওতে দেখা গেছে, স্বেচ্ছাসেবী কয়েক তরুণ পর্যটকদের লাঠি দিয়ে আঘাত করছেন। এ সময় এক নারী ও কয়েক তরুণী স্বেচ্ছাসেবীদের নিবৃত্ত করার চেষ্টা করেন। এরপরও তাঁরা থামেননি। ভিডিওটিতে নারীদের আর্তচিৎকার করতে শোনা যায়। ভিডিওটি ছড়িয়ে পড়ার পর প্রশাসনও তৎপর হয়ে ওঠে। এ ঘটনায় জড়িত দুজনকে প্রথমে আটক করা হয়। পরবর্তীকালে আরও তিনজনকে আটক করে স্বেচ্ছাসেবকের পদ থেকে বরখাস্ত করা হয়।

গোয়াইনঘাট থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা কে এম নজরুল ইসলাম বলেন, মামলা হওয়ার পরপরই ওই পাঁচজনকে গ্রেপ্তার দেখানো হয়েছে। তাঁদের আজ শুক্রবার সকালে আদালতে পাঠানোর প্রস্তুতি চলছে।

এদিকে এ ঘটনার পর আগামী সাত দিন জাফলংয়ে বেড়াতে আসা পর্যটকদের কাছে কোনো ধরনের প্রবেশ ফি আদায় করা হবে না বলে জানিয়েছেন সিলেটের জেলা প্রশাসক মো. মজিবর রহমান। ফলে আজ শুক্রবার থেকে আগামী সাত দিন জাফলংয়ে প্রবেশ উন্মুক্ত থাকবে।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন