বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

জেলা প্রশাসক মো. মজিবর রহমান প্রথম আলোকে বলেন, ‘আজ প্রবাসীকল্যাণ ও কর্মসংস্থানমন্ত্রীর চিঠিটি হাতে পেয়েছি। গত বৃহস্পতিবারই ঘোষণা দিয়ে জাফলংয়ে পর্যটকদের কাছ থেকে প্রবেশ ফি আদায় বন্ধের আদেশ দেওয়া হয়েছে। এক সপ্তাহের জন্য বন্ধ রাখার ঘোষণা দেওয়া হলেও জেলা পর্যটন উন্নয়ন কমিটির পরবর্তী বৈঠক না হওয়া পর্যন্ত ওই সময়সীমা বাড়ানো হয়েছে। তিনি বলেন, আগামী সপ্তাহে জেলা পর্যটন উন্নয়ন কমিটির বৈঠক অনুষ্ঠিত হবে বলে তিনি আশা করছেন। ওই বৈঠকেই প্রবেশ ফি না নেওয়ার বিষয়ে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত হবে।

৫ মে জাফলংয়ের টিকিট কাউন্টারের কর্মীরা পর্যটকদের মারধর করেন। পর্যটকদের মারধরের ভিডিও সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ছড়িয়ে পড়লে জেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে জাফলংয়ে পর্যটকদের কাছ থেকে ‘প্রবেশ ফি’ আদায় এক সপ্তাহের জন্য বন্ধ রাখতে নির্দেশ দেন জেলা প্রশাসক। অন্যদিকে পর্যটকদের মারধরের ঘটনায় মামলা করেন এক ভুক্তভোগী। এ ঘটনায় টিকিট কাউন্টারের দায়িত্বে থাকা ও মারধরে জড়িত পাঁচজনকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।

প্রবাসীকল্যাণ ও কর্মসংস্থানমন্ত্রী ইমরান আহমদ স্বাক্ষরিত চিঠিতে ৫ মে পর্যটকদের ওপর হামলার ঘটনা উল্লেখ করে বলা হয়, বাংলাদেশের অন্যতম পর্যটনকেন্দ্র সিলেটের জাফলংয়ে প্রবেশ ফি নিয়ে স্বেচ্ছাসেবক ও পর্যটকদের মধ্যে অপ্রীতিকর ঘটনা ঘটে। ইতিমধ্যে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ওই দৃশ্যের ভিডিও ছড়িয়ে পড়েছে। যা সিলেটের পর্যটনকেন্দ্রগুলো সম্পর্কে ভ্রমণপিপাসুদের মধ্যে বিরূপ প্রতিক্রিয়া তৈরি করেছে। দেশে ও বিদেশে এলাকার ভাবমূর্তি ক্ষুণ্ন হয়েছে, যা কখনোই কাম্য নয়। তা ছাড়া জেলা পর্যটন উন্নয়ন কমিটি পর্যটনকেন্দ্রগুলোর মাধ্যমে প্রবেশ ফি নির্ধারণ, আদায় ও আদায় করা অর্থের ব্যবহার–সংক্রান্ত কোনো আইনানুগ বিধান জারি হয়েছে কি না তা জানা প্রয়োজন। মন্ত্রী এ–সংক্রান্ত নীতিমালা বা বিধিবিধান জানানোর অনুরোধ করেছেন এবং চূড়ান্তভাবে আলোচনার মাধ্যমে সিদ্ধান্ত নেওয়ার আগে প্রবেশ ফি আদায় বন্ধ রাখতে বলেন।

২০২০ সালের ৩ নভেম্বর সিলেটের তৎকালীন জেলা প্রশাসক এম কাজী এমদাদুল ইসলামের সভাপতিত্বে সিলেট জেলা পর্যটন উন্নয়ন কমিটির এক সভায় জাফলংয়ে ১০ টাকা হারে প্রবেশ ফি নির্ধারণের সিদ্ধান্ত হয়। ২০২১ সালের ২৯ সেপ্টেম্বর থেকে প্রবেশ ফি আদায় শুরু হয়।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন