বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, তিন ছাত্রী নিখোঁজের বিষয়ে তদন্তের অংশ হিসেবে পুলিশ গতকাল রাতে ওই মাদ্রাসায় যায়। মাদ্রাসার শিক্ষকদের জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়। একপর্যায়ে পুলিশ ওই মাদ্রাসার চার শিক্ষককে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য থানায় নিয়ে যায়। আজ মঙ্গলবার বেলা ১১টার পর্যন্ত ওই চার শিক্ষক পুলিশ হেফাজতেই আছেন বলে জানা গেছে।

জামালপুরের সিনিয়র সহকারী পুলিশ সুপার (ইসলামপুর সার্কেল) মো. সুমন মিয়া প্রথম আলোকে বলেন, তিন ছাত্রী নিখোঁজের বিষয়ে পুলিশের তদন্ত শুরু হয়েছে। মাদ্রাসাটি আপাতত বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে। জিজ্ঞাসাবাদের জন্য চার শিক্ষককে আনা হয়েছে। তাঁদের জিজ্ঞাসাবাদ চলছে। তবে এখনো ওই ছাত্রীদের সন্ধান পাওয়া যায়নি। তবে দ্রুত সময়ের মধ্যেই উদ্ধারের চেষ্টা করা হচ্ছে।

প্রসঙ্গত, গত রোববার রাতে ওই তিন ছাত্রী মাদ্রাসার অন্য আবাসিক শিক্ষার্থীদের সঙ্গে একটি কক্ষে ঘুমিয়ে পড়ে। পরদিন সকালে ফজরের নামাজ আদায়ের জন্য ঘুম থেকে সব শিক্ষার্থীকে জাগিয়ে দেওয়া হয়। অন্যদের মতো ওই তিন শিক্ষার্থীও নামাজ আদায়ের প্রস্তুতি নেয়। তখন থেকে নিখোঁজ তারা। পরে তাদের পরিবারকে বিষয়টি জানানো হয়। ওই দিন বিকেলে ইসলামপুর থানায় সাধারণ ডায়েরি (জিডি) করা হয়।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন