default-image

জামালপুর সদর উপজেলায় মিজানুর রহমান (৩৭) নামের এক ব্যক্তিকে হত্যার দায়ে দুই নারীসহ তিনজনকে সশ্রম যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দিয়েছেন আদালত। একই সঙ্গে তাঁদের প্রত্যেককে ৩০ হাজার টাকা করে জরিমানা করা হয়েছে। জেলা ও দায়রা জজ মো. জুলফিকার আলী খান আজ রোববার দুপুরে এ রায় দেন।

দণ্ডপ্রাপ্তরা হলেন জামালপুর সদর উপজেলার ডেংগারগড় এলাকার আলতাফ হোসেনের স্ত্রী জান্নাতুল ফেরদৌস (৩৪), একই উপজেলার শ্রীরামপুর এলাকার মো. আলতাফ হোসেনের স্ত্রী সুফিয়া আক্তার (৪৫) ও একই এলাকার মো. এহসান আহম্মেদ (৩৫)। তাঁদের তিনজনকে জেলহাজতে পাঠানো হয়েছে।

মামলার সংক্ষিপ্ত বিবরণী ও আদালত সূত্রে জানা যায়, ২০১৩ সালের ৮ মে সকালে সদর উপজেলার ডেংগারগড় এলাকায় মিজানুর রহমান লাশ দেখতে পান স্থানীয় লোকজন। পরে পরিবারের সদস্যরা গিয়ে লাশটি শনাক্ত করেন। ওই দিনই নিহতের মা হাসিনা বেগম জামালপুর সদর থানায় পুত্রবধূ ফারজানা ইসলামকে আসামি করে একটি হত্যা মামলা করেন। মামলায় তিনি অভিযোগ করেন, তাঁর পুত্রবধূর পরকীয়ার জেরে তাঁর ছেলের প্রাণ গেছে।

পুলিশ ফারজানাকে গ্রেপ্তার করে আদালতে পাঠায়। পুলিশ নিহতের কললিস্টের সূত্র ধরে জান্নাতুল ফেরদৌস ও মো. এহসান আহম্মেদকে গ্রেপ্তার করে। তাঁরা হত্যার দায় স্বীকার করে ১৬৪ ধারায় জবানবন্দি দেন। পরে পুলিশ ২২ জুলাই জান্নাতুল ফেরদৌস, মো. এহসান আহম্মেদ, সুফিয়া আক্তার ও আবুল হোসেনের নামে আদালতে অভিযোপত্র দেন। তবে স্ত্রী ফারজানা ইসলামকে পুলিশ অভিযোগপত্র থেকে অব্যাহতি দেন।

রাষ্ট্রপক্ষে মামলা পরিচালনা করেন জেলা ও দায়রা জজ আদালতের সরকারি কৌঁসুলি (পিপি) নির্মল কান্তি ভদ্র। আসামিপক্ষে ছিলেন মুহাম্মদ বাকী বিল্লাহ, আনোয়ারুল করিম ও মো. মোশারফ হোসেন।

বিজ্ঞাপন
জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন