বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

পুলিশ জানায়, তিন ছাত্রী নিখোঁজের বিষয়ে তদন্তের অংশ হিসেবে পুলিশ সোমবার রাতে ওই মাদ্রাসায় অভিযান চালায়। এ সময় মাদ্রাসায় তল্লাশি ও সব শিক্ষককে জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়। একপর্যায়ে ওই রাতেই পুলিশ মাদ্রাসার চার শিক্ষককে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য থানায় নিয়ে যায়। গতকাল মঙ্গলবার সারা দিন তাঁদের জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়।

জামালপুরের সিনিয়র সহকারী পুলিশ সুপার (ইসলামপুর সার্কেল) মো. সুমন মিয়া প্রথম আলোকে বলেন, ওই তিন ছাত্রীকে উদ্ধারে পুলিশ তৎপর আছে। বিভিন্ন বিষয় ধরে পুলিশের একাধিক দল কাজ করছে। ওই চার শিক্ষককেও সারা দিন জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়েছে। তবে গুরুত্বপূর্ণ তেমন কোনো তথ্য পাওয়া যায়নি। এ ঘটনায় এক ছাত্রীর পরিবার মামলা করেছে। ওই মামলা চার শিক্ষককে গ্রেপ্তার দেখানো হয়েছে। ওই চারজন ছাড়াও মামলায় অজ্ঞাতনামা আরও পাঁচজনকে আসামি করা হয়েছে।

প্রসঙ্গত, গত রোববার রাতে ওই তিন ছাত্রী মাদ্রাসার অন্য আবাসিক শিক্ষার্থীর সঙ্গে একটি কক্ষে ঘুমিয়ে পড়ে। পরদিন সকালে ফজরের নামাজ আদায়ের জন্য ঘুম থেকে সব শিক্ষার্থীকে জাগিয়ে দেওয়া হয়। অন্যদের মতো ওই তিন শিক্ষার্থীও নামাজ আদায়ের প্রস্তুতি নেয়। এর পর থেকেই তারা নিখোঁজ। পরে তাদের পরিবারকে বিষয়টি জানানো হয়। ওই দিন বিকেলে ইসলামপুর থানায় সাধারণ ডায়েরি (জিডি) করা হয়।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন