default-image

সিলেটে পুলিশি হেফাজতে মো. রায়হান আহমদ হত্যা মামলার আসামি ও সহকারী উপপরিদর্শক (এএসআই) মো. আশেক এলাহিকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। রিমান্ডে থাকা অবস্থায় গত শুক্রবার রাতে বুকে ব্যথা অনুভব করলে পরদিন শনিবার তাঁকে সিলেটের এম এ জি ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।

পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশন (পিবিআই) সিলেট কার্যালয়ের পুলিশ সুপার মুহাম্মদ খালেদ-উজ-জামান এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন। তিনি জানান, চিকিৎসকের পরামর্শেই বুকে ব্যথা অনুভব করা আশেক এলাহিকে হাসপাতালের হৃদ্‌রোগ বিভাগে ভর্তি করা হয়েছে।
পিবিআই জানায়, মামলায় গ্রেপ্তার দেখিয়ে আশেক এলাহীকে গত ২৯ অক্টোবর থেকে পাঁচ দিনের রিমান্ডে নেওয়া হয়েছিল। তিনি বন্দরবাজার ফাঁড়ি পুলিশে কর্মরত ছিলেন।

সিলেট নগরীর আখালিয়া নিহারিপাড়ার বাসিন্দা রায়হানকে ১০ অক্টোবর রাতে সিলেটের বন্দরবাজার ফাঁড়িতে তুলে নিয়ে নির্যাতন করা হয়। পরদিন ১১ অক্টোবর তিনি মারা যান। রিকাবিবাজার এলাকার একটি রোগ নির্ণয় কেন্দ্রে চাকরি করতেন রায়হান। এ ঘটনায় ১১ অক্টোবর রাতে হেফাজতে মৃত্যু (নিবারণ) আইনে তাঁর স্ত্রী তাহমিনা আক্তার বাদী হয়ে কোতোয়ালি থানায় মামলা করেন। নগর পুলিশের প্রাথমিক অনুসন্ধানে ফাঁড়িতে নির্যাতনের সত্যতা পেয়ে ইনচার্জের দায়িত্বে থাকা উপপরিদর্শক (এসআই) আকবর হোসেন ভূঞাসহ চার পুলিশ সদস্যকে সাময়িক বরখাস্ত ও তিনজনকে ফাঁড়ি থেকে প্রত্যাহার করা হয়। এএসআই আশেক প্রত্যাহার করা তিন পুলিশ সদস্যের একজন। ১০ অক্টোবর দিবাগত রাত প্রায় তিনটার দিকে রায়হানের বিরুদ্ধে কথিত ছিনতাইয়ের অভিযোগ এনে এএসআই আশেকই একদল পুলিশ নিয়ে নগরীর কাস্টঘর এলাকা থেকে ফাঁড়িতে তুলে এনেছিলেন।

বিজ্ঞাপন

এদিকে বরখাস্তের পরপরই পুলিশি হেফাজত থেকে পালিয়ে গা ঢাকা দেন ফাঁড়ির ইনচার্জের দায়িত্বে থাকা এসআই আকবর হোসেন ভূঞা।

নগর পুলিশ সূত্র জানিয়েছে, আকবরের পালিয়ে যাওয়ার বিষয়টি তদন্ত করে পুলিশের সদর দপ্তরের তিন সদস্যের একটি কমিটি। আকবরকে পালাতে সহায়তা করার অভিযোগে ফাঁড়ির ‘টুইআইসি’ পদে থাকা এসআই হাসান উদ্দিনকে ২১ অক্টোবর সাময়িক বরখাস্ত করা হয়। আকবরের পালানোর ঘটনায় সমালোচনার মুখে সরানো হয় পুলিশ কমিশনার পদে থাকা গোলাম কিবরিয়াকে। তাঁর জায়গায় দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে পুলিশের স্পেশাল প্রোটেকশন ব্যাটালিয়নের (এসপিবিএন) ডিআইজি পদে থাকা মো. নিশারুল আরিফকে। গত ২৭ অক্টোবর তিনি সিলেট মহানগর পুলিশ কমিশনারের দায়িত্ব নিয়েছেন।

মন্তব্য পড়ুন 0