জিলাপির খামিতে বিড়ালছানা!

বিজ্ঞাপন

ইফতারির জন্য তৈরি করা হচ্ছিল জিলাপির খামি। খামিতে মুখ দিতে গিয়ে পাত্রের ভেতরে পড়ে একটি অসুস্থ বিড়ালছানা। কারিগর পাত্র থেকে বিড়ালছানা বের করলেও থেকে যায় লোম। সেই লোম মিশ্রিত খামি দিয়েই চলছিল জিলাপি তৈরির প্রস্তুতি। সেই সঙ্গে রান্নাঘর ছিল অপরিচ্ছন্ন অস্বাস্থ্যকর।

এমন অবস্থার কারণে সিলেটের ওসমানীনগরের গোয়ালাবাজারের মালঞ্চ মিষ্টান্ন ভান্ডারকে ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তরের অভিযানে ৩০ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়েছে। গতকাল দুপুরে এ ঘটনা ঘটে। অভিযান পরিচালনা করেন ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তর সিলেট জেলা কার্যালয়ের সহকারী পরিচালক মো. জাহাঙ্গীর আলম। তাঁকে সহযোগিতা করে ওসমানীনগর থানার পুলিশ।

জাহাঙ্গীর আলম জানান, অস্বাস্থ্যকর ও অপরিচ্ছন্ন পরিবেশে খাবার তৈরি করা হচ্ছিল। রান্নাঘরের পাশেই ছিল কাপড়ের পর্দা টাঙানো শৌচাগার। যে কেউই এমন পরিবেশ দেখলে ওই প্রতিষ্ঠান থেকে খাবার কিনে খাওয়ার ইচ্ছা জাগবে না। তবে প্রতিষ্ঠানের ভেতরের দিকে হওয়ায় বিষয়টি কারও নজরে আসেনি। বুধবার তদারকি অভিযানকালে জিলাপি তৈরির খামিতে অসুস্থ একটি বিড়ালের ছানা পড়ে যাওয়ার প্রমাণ পাওয়া যায়। আর ওই খামি ফেলে না দিয়ে সেটি দিয়েই জিলাপি বানানোর প্রস্তুতি চলছিল। এ কারণে ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ আইনে ৩০ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়। পাশাপাশি ধ্বংস করা হয় খামি ও পোড়া তেল।

বিজ্ঞাপন
মন্তব্য পড়ুন 0
বিজ্ঞাপন