default-image

কক্সবাজারের টেকনাফে ৪টি সোনার বারসহ একজনকে আটক করেছে বর্ডার গার্ড বাংলাদেশ (বিজিবি)। এই ৪টি সোনার বারের ওজন ৫৬ ভরির বেশি, যার আনুমানিক বাজারমূল্য ৩৬ লাখ ৭০ হাজার ৪৫৩ টাকা বলে বিজিবি সূত্র জানিয়েছে।

আটক ব্যক্তির নাম মোহাম্মদ শাহ আলম (৩১)। তিনি টেকনাফ উপজেলার হোয়াইক্যং ইউনিয়নের উত্তর পাড়ার আবুল মজিদের ছেলে। গতকাল বুধবার দিবাগত রাত আটটার দিকে হোয়াইক্যং বিজিবি তল্লাশিচৌকি এলাকা থেকে তাঁকে আটক করা হয়। প্রথম আলোকে এ তথ্যটি নিশ্চিত করেছেন টেকনাফ-২ বিজিবি অধিনায়ক লেফটেন্যান্ট কর্নেল মোহাম্মদ ফয়সল হাসান খান।

বিজ্ঞাপন

ফয়সল হাসান খান বলেন, বুধবার রাতে হোয়াইক্যং তল্লাশিচৌকি এলাকায় হোয়াইক্যং থেকে উখিয়ার বালুখালীগামী একটি ইজিবাইক পৌঁছালে বিজিবি সদস্যরা তল্লাশির জন্য থামান। এ সময় একজন যাত্রীর আচরণ সন্দেহজনক হওয়ায় তাঁর সারা শরীরে তল্লাশি চালানো হয়। তখন ওই ব্যক্তির পরা জুতার ভেতরে অভিনব কৌশলে লুকিয়ে রাখা ৪টি সোনার বার উদ্ধার করা হয়। এ সময় ওই সোনার বারের কোনো বৈধ কাগজপত্র না থাকায় সরকারি শুল্ক ফাঁকি দিয়ে সোনা চোরাচালানের দায়ে তাঁকে আটক করা হয়। এরপর আটক ব্যক্তিকে টেকনাফ মডেল থানা-পুলিশে সোপর্দ করা হয়। উদ্ধার করা সোনার বারগুলো কক্সবাজার জেলা প্রশাসকের ট্রেজারি শাখায় জমা করা হয়েছে।

জানতে চাইলে টেকনাফ মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. হাফিজুর রহমান প্রথম আলোকে বলেন, সোনার বারসহ আটক ব্যক্তিকে আজ বৃহস্পতিবার দুপুরে কক্সবাজার আদালতে পাঠানো হয়েছে।

মন্তব্য পড়ুন 0