default-image

মৌলভীবাজারের জুড়ীতে পরিবেশ আইন লঙ্ঘন করে টিলা কেটে বসতঘর নির্মাণ করায় আতিকুল ইসলাম ও ছায়েম উদ্দিন নামের দুই সহোদরকে ৪০ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়েছে। পরিবেশ অধিদপ্তরের সিলেট বিভাগীয় কার্যালয়ে আজ বুধবার শুনানি শেষে এ জরিমানা করা হয়।

পরিবেশ অধিদপ্তর সূত্রে জানা গেছে, উপজেলার গোয়ালবাড়ি ইউনিয়নের দ্বহপাড়া গ্রামের বাসিন্দা আতিকুল ইসলাম ও ছায়েম উদ্দিন সম্প্রতি তাঁদের মালিকানাধীন প্রায় ৪০ ফুট উচ্চতার একটি টিলার প্রায় ৭৫০ বর্গফুট জায়গার মাটি কেটে নিচে একটি পাকা বসতঘর নির্মাণ করেন। এতে টিলাটি ঝুঁকিপূর্ণ হয়ে ওঠে। খবর পেয়ে ২৫ অক্টোবর উপজেলা প্রশাসন ও পরিবেশ অধিদপ্তরের কর্মকর্তারা ঘটনাস্থলে অভিযান চালান। এরপর পরিবেশ অধিদপ্তরের মৌলভীবাজার কার্যালয় এ বিষয়ে সিলেটের বিভাগীয় কার্যালয়ের পরিচালকের কাছে একটি প্রতিবেদন পাঠায়। এর পরিপ্রেক্ষিতে আজ বিকেলে বিবাদীপক্ষের উপস্থিতিতে শুনানি হয়। পরে টিলার দুই মালিককে জরিমানা করা হয়।

বিজ্ঞাপন

পরিবেশ অধিদপ্তরের সিলেট বিভাগীয় কার্যালয়ের পরিচালক মোহাম্মদ এমরান হোসেন জরিমানার বিষয়টি নিশ্চিত করে বিকেল সাড়ে ৬টার দিকে মুঠোফোনে প্রথম আলোকে বলেন, ১৯৯৫ সালের পরিবেশ সংরক্ষণ আইন অনুযায়ী, টিলা বা পাহাড় ব্যক্তিমালিকানাধীন হলেও তা কাটা নিষিদ্ধ। ওই আইন লঙ্ঘন করে টিলা কাটা হয়েছে। এ অবস্থায় পরিবেশ ও প্রতিবেশের ক্ষতিপূরণ বাবদ ৪০ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়েছে। ৭ কার্যদিবসের মধ্যে জরিমানার টাকা ট্রেজারি চালানের মাধ্যমে রাষ্ট্রীয় কোষাগারে জমা দেওয়ার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

এ বিষয়ে ২৫ অক্টোবর প্রথম আলোর অনলাইনে ‘জুড়ীতে টিলা কেটে বসতঘর নির্মাণ, অভিযান’ শিরোনামে একটি সচিত্র প্রতিবেদন প্রকাশিত হয়। এ ছাড়া ২৭ অক্টোবর এ নিয়ে সম্পাদকীয়ও ছাপা হয়।

মন্তব্য পড়ুন 0