default-image

মৌলভীবাজারের জুড়ী উপজেলার পূর্ব বটুলি সীমান্তে আজ শনিবার সকালে বাপ্পা (৩০) নামের স্থানীয় এক গরু ব্যবসায়ীর লাশ পাওয়া গেছে। তিনি পূর্ব বটুলি গ্রামের আবদুর রুপের ছেলে।

এলাকাবাসী বলেন, বাপ্পা গরুর ব্যবসা করেন। গতকাল শুক্রবার সন্ধ্যার দিকে তিনি বাড়ি থেকে বের হন। আজ ভোররাত রাত চারটার দিকে সীমান্তে কয়েকটি গুলির শব্দ শোনা যায়। আজ সকাল সাতটার দিকে স্থানীয় লোকজন সীমান্তখুঁটির কাছে শূন্যরেখায় একটি লাশ পড়ে থাকতে দেখেন। পরে বিষয়টি বর্ডার গার্ড বাংলাদেশের (বিজিবি) স্থানীয় ফুলতলা ক্যাম্পের লোকজনকে জানানো হয়। সকাল আটটার দিকে বিজিবির লোকজন ঘটনাস্থলে যান। একপর্যায়ে স্বজনেরা গিয়ে লাশটি বাপ্পার বলে শনাক্ত করেন। এ সময় কাঁটাতারের বেড়ার কিছু অংশ ফাঁকা দেখা যায়।

ফুলতলা ইউনিয়ন পরিষদের (ইউপি) ৭ নম্বর ওয়ার্ডের সদস্য মঈন মিয়া আজ সকাল ১০টার দিকে মুঠোফোনে প্রথম আলোকে বলেন, কিছু চোরাকারবারি প্রায়ই গরু আনতে অবৈধভাবে সীমান্তে ঢুকে পড়েন। নিহত বাপ্পার মুখ ও বুকে রক্ত দেখা গেছে। ভারতীয় সীমান্তরক্ষী বাহিনীর (বিএসএফ) গুলিতে তিনি মারা যেতে পারেন বলে ধারণা করা হচ্ছে।

বিজিবির ৫২ ব্যাটালিয়নের ফুলতলা ক্যাম্পের কমান্ডার সুবেদার দেলোয়ার হোসেন আজ সকাল সাড়ে ১০টার দিকে বলেন, তাঁরা সীমান্তে এক ব্যক্তির লাশ পড়ে থাকার খবর শুনেছেন। ওই ব্যক্তি বাংলাদেশি কি না, তিনি কীভাবে মারা গেছেন, তা খোঁজখবর নিয়ে দেখা হচ্ছে। এ বিষয়ে বিএসএফের সঙ্গে যোগাযোগ চলছে।

বিজ্ঞাপন
জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন