default-image

মৌলভীবাজারের জুড়ী উপজেলার ফুলতলা সীমান্তের দুটি স্থানে শূন্য লাইন থেকে ১৫০ গজের ভেতরে ভারতীয় সীমান্তরক্ষী বাহিনী (বিএসএফ) সম্প্রতি কাঁটাতারের বেড়া স্থাপনের চেষ্টা চালায়। পরে বর্ডার গার্ড বাংলাদেশের (বিজিবি) বাধায় কাজ বন্ধ হয়। এরপর উভয় পক্ষ সীমান্তে তাদের টহল জোরদার করেছে।

বিজিবির সূত্রে জানা গেছে, ফুলতলা সীমান্তের বিপরীতে ভারতের ত্রিপুরা রাজ্যের রাঘনা এলাকা পড়েছে। গত রোববার বিএসএফ তাদের সীমান্তের প্রায় ৭০০ মিটার জায়গায় শূন্য লাইন থেকে ১৫০ গজের ভেতরে কাঁটাতারের বেড়া স্থাপনের চেষ্টা চালায়। এ পরিস্থিতিতে উভয় পক্ষের মধ্যে উত্তেজনা দেখা দেয়। পরে ওই দিনই বিজিবি-বিএসএফের কোম্পানি কমান্ডার পর্যায়ে পতাকা বৈঠক হয়। বৈঠকে বিজিবি বিএসএফকে বেড়া স্থাপনের কাজ বন্ধ রাখতে বলা হয়। বিএসএফ তাতে সম্মত হয়।

ফুলতলা ইউনিয়ন পরিষদের (ইউপি) ৭ নম্বর ওয়ার্ডের সদস্য মঈন উদ্দিন বলেন, বিজিবি ও বিএসএফ সীমান্তে টহল জোরদার করেছে। বিএসএফ বেড়া স্থাপনের জন্য বিভিন্ন ধরনের মালামাল এনে মজুত করে রেখেছে।

বিজ্ঞাপন
আন্তর্জাতিক নিয়ম অনুসারে শূন্য লাইন থেকে ১৫০ গজের বাইরে বেড়া স্থাপনের কথা। কিন্তু বিএসএফ তা না মেনে ১৫০ গজের ভেতরে বেড়া স্থাপনের চেষ্টা চালায়।
মো. শহীদুল ইসলাম, বিজিবির ফুলতলা ক্যাম্পের কোম্পানি কমান্ডার সুবেদার

বিজিবির ফুলতলা ক্যাম্পের কোম্পানি কমান্ডার সুবেদার মো. শহীদুল ইসলাম বলেন, আন্তর্জাতিক নিয়ম অনুসারে শূন্য লাইন থেকে ১৫০ গজের বাইরে বেড়া স্থাপনের কথা। কিন্তু বিএসএফ তা না মেনে ১৫০ গজের ভেতরে বেড়া স্থাপনের চেষ্টা চালায়। এ কারণে জরুরিভাবে পতাকা বৈঠক ডেকে তাঁরা বিএসএফের কাছে আপত্তি জানান। বৈঠকে দুই বাহিনীর উচ্চপর্যায়ে আলোচনা করে এ ব্যাপারে পরবর্তী ব্যবস্থা নেওয়া হবে বলে তাঁদের পক্ষ থেকে জানানো হয়। সীমান্তে টহল জোরদার রয়েছে।

সিলেটের বিয়ানীবাজার উপজেলায় অবস্থিত বিজিবির ৫২ ব্যাটালিয়নের অধিনায়ক লে. কর্নেল গাজী শহীদুল্লাহ মুঠোফোনে বলেন, ফুলতলা সীমান্তে বিএসএফ কাঁটাতারের বেড়া স্থাপনের চেষ্টা চালিয়েছিল। বিজিবির বাধায় তারা সেটা পারেনি। সীমান্তের পরিস্থিতি শান্ত আছে।

মন্তব্য করুন