default-image

বাগেরহাট শহরের সাধনার মোড়সংলগ্ন রেলরোড এলাকার একটি জুয়েলারি দোকানে চুরির ঘটনা ঘটেছে। সোমবার দিনগত রাতের কোনো এক সময় এই চুরির ঘটনা ঘটে। রুপালি জুয়েলার্স নামের ওই দোকানমালিকের দাবি, চোরেরা তালা ভেঙে ১০০ ভরির বেশি স্বর্ণালংকার নিয়ে গেছে, যার বাজারমূল্য ৬০ লাখ টাকার বেশি।

খবর পেয়ে সকালে বাগেরহাটের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার শাফিন মাহমুদসহ আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর কর্মকর্তারা ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন।

ওই দোকানের এক কর্মচারী বলেন, দুর্বৃত্তরা ভেতরে প্রবেশ করে প্রথমে সিসি ক্যামেরার কেব্‌ল কেটেছে। দুটি সিসি ক্যামেরাও ভেঙে ফেলেছে তারা। তবে সিসি ক্যামেরায় একজনের উপস্থিতি ধরা পড়েছে, যা পুলিশকে দেওয়া হয়েছে।

শহরের রেলরোডের ড্রিমল্যান্ড সুপার মার্কেটের রুপালি জুয়েলার্সের মালিক ভোলানাথ দাস বলেন, প্রতিদিনের মতো সোমবার রাত ১০টার দিকে দোকান বন্ধ করে বাড়িতে চলে যান। মঙ্গলবার সকালে মার্কেটের মালিকপক্ষ দোকানে তালা ভাঙা দেখতে পেয়ে খবর দেন। তিনি দোকানে এসে দেখেন লোহার সিন্দুক ভাঙা। সিন্দুক ও শোকেসে কোনো স্বর্ণালংকার নেই, একেবারে ফাঁকা। ভোলানাথ দাস বলেন, ‘আমার ১০০ ভরির অধিক সোনার গহনা রাখা ছিল, যার আনুমানিক বাজারমূল্য ৬০ লাখ টাকার অধিক।’

ভোলানাথ দাস বলেন, চোরের দল দোকানের সার্টার ভেঙে ভেতরে প্রবেশ করেই প্রথমে দোকানের সিসি ক্যামেরা সংযোগ বিছিন্ন করে দেয়।

বিজ্ঞাপন

নাম প্রকাশ না করার শর্তে বাগেরহাট জুয়েলারি মালিক সমিতির একাধিক নেতা ক্ষোভ প্রকাশ করে বলেন, বিগত দিনেও এ ধরনের চুরি কমবেশি হয়েছে। তবে অন্য সময়ের চেয়ে বড় চুরির ঘটনা ঘটেছে রুপালি জুয়েলার্সে। অধিকাংশ চুরির ঘটনার কোনো কিনারা হয়নি। কিছুদিন আগে এই দোকানের অদূরে সাধনার মোড়ের আর এস টেলিকম নামের একটি প্রতিষ্ঠানে চোরেরা ঢুকে প্রায় আট লাখ টাকার মুঠোফোন নিয়ে যায়। সেই চোরদের সিসি ক্যামেরায় থাকা ফুটেজ পুলিশকে দেওয়া হয়েছিল। রুপালি জুয়েলার্সের চুরি যাওয়া স্বর্ণালংকার উদ্ধারে পুলিশকে জোরাল ভূমিকা রাখতে হবে।

বাগেরহাটের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মীর মো. শাফিন মাহমুদ সাংবাদিকদের বলেন, দোকানের সিন্দুকে ও শোকেসে ১০০ ভরি স্বর্ণালংকার ছিল বলে প্রাথমিকভাবে পুলিশকে জানানো হয়েছে। ওই জুয়েলারি দোকানে কী পরিমাণ স্বর্ণালংকার ছিল, তার তালিকা চাওয়া হয়েছে। দোকানের সিসি ক্যামেরার সব ভিডিও ফুটেজ সংগ্রহ করা হয়েছে। এই ঘটনায় মামলা নেওয়া হবে। চোর চক্রটিকে ধরতে তদন্ত চলছে।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন