default-image

জ্যেষ্ঠ সহকারী পুলিশ সুপার (এএসপি) আনিসুল করিম হত্যার বিচারের দাবিতে জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ে মানববন্ধন হয়েছে। প্রাণরসায়ন ও অনুপ্রাণবিজ্ঞান বিভাগের উদ্যোগে মঙ্গলবার দুপুর সোয়া ১২টায় প্রধান ফটকের সামনে ঢাকা-আরিচা মহাসড়কে এ মানববন্ধন হয়। এতে অর্ধশতাধিক শিক্ষক-শিক্ষার্থী ও কর্মকর্তা-কর্মচারী অংশ নেন।

মানববন্ধনে সংহতি জানায় ঢাকার সাভারের গণবিশ্ববিদ্যালয়ের প্রাণরসায়ন ও অনুপ্রাণবিজ্ঞান বিভাগ।

৯ নভেম্বর বেলা ১১টায় রাজধানীর আদাবরের মাইন্ড এইড হাসপাতালে চিকিৎসা নিতে গিয়ে ওই হাসপাতালের কর্মচারীদের মারধরে আনিসুল করিম নিহত হয়েছেন বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। ওই ঘটনায় ১০ নভেম্বর সকালে আনিসুলের বাবা ফয়েজ উদ্দিন বাদী হয়ে মামলা করেন।

আনিসুল করিম জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রাণরসায়ন ও অনুপ্রাণ বিজ্ঞান বিভাগের ৩৩তম ব্যাচের শিক্ষার্থী ছিলেন। তিনি ৩১তম বিসিএস পরীক্ষা দিয়ে পুলিশ ক্যাডারে যোগ দিয়েছিলেন।

বিজ্ঞাপন

মানববন্ধন চলাকালে বিভাগের অধ্যাপক সোহেল আহমেদ বলেন, ‘আনিসুলকে নির্মমভাবে হত্যার দৃশ্য সিসিটিভি ফুটেজে দেখা গেছে। একজন পুলিশ কর্মকর্তাকে এভাবে হত্যা করলে সাধারণ মানুষের সঙ্গে এরা কেমন করবে। এই হত্যাকাণ্ডের মধ্য দিয়ে দেশের মানসিক স্বাস্থ্যসেবা খাতের বেহাল চিত্র ফুটে উঠেছে। এই সেবা খাতের মানোন্নয়নে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার কাছে আবেদন জানাই। আনিসুলের মতো আর কাউকে যেন মৃত্যুবরণ করতে না হয়, সে জন্য এ ঘটনার সুষ্ঠু বিচার করতে হবে।’
প্রাণরসায়ন ও অনুপ্রাণবিজ্ঞান বিভাগের সভাপতি অধ্যাপক নূরুল করিম বলেন, ‘একজন শিক্ষক হিসেবে ছাত্রের মৃত্যু দেখাটা অত্যন্ত বেদনার। দ্রুততম সময়ে সুষ্ঠু তদন্তের মাধ্যমে শিপনকে হত্যার বিচার নিশ্চিত করতে হবে।’

প্রাণরসায়ন ও অনুপ্রাণবিজ্ঞান বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক বোরহান উদ্দিনের সঞ্চালনায় মানববন্ধনে আরও বক্তব্য দেন অধ্যাপক মু. নজিবুর রহমান, অধ্যাপক মো. শাহাদাত হোসেন ও বিভাগের ল্যাব অ্যাটেনডেন্ট শহিদুল ইসলাম।

মন্তব্য পড়ুন 0