default-image

জয়পুরহাটে ২১ পুলিশ সদস্যসহ আরও ৬৭ জনের শরীরে করোনাভাইরাসের (কোভিড-১৯) সংক্রমণ শনাক্ত হয়েছে। জেলায় এক দিনে এটি সর্বোচ্চ শনাক্ত। জয়পুরহাটের সিভিল সার্জন সেলিম মিঞা আজ শনিবার এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন। এ নিয়ে জেলায় কোভিড-১৯ রোগীর সংখ্যা দাঁড়াল ৩২৪। এর মধ্যে ১৬৩ জন রোগী আইসোলেশন থেকে সুস্থ হয়েছেন।

সিভিল সার্জনের কার্যালয় সূত্রে জানা গেছে, গতকাল শুক্রবার রাতে ঢাকার ন্যাশনাল ইনস্টিটিউট অব ল্যাবরেটরি মেডিসিন অ্যান্ড রিসার্চ সেন্টারের ল্যাব ও রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের ল্যাব থেকে মোট ৫১২ জনের নমুনার পরীক্ষার ফল এসেছে। তাঁদের মধ্যে ৭৯ জনের পজিটিভ ফল পাওয়া গেছে। এর মধ্যে ১২ জনের ফলোআপ ফল রয়েছে। অর্থাৎ তাঁদের শরীরে আগেই করোনা শনাক্ত হয়েছিল। নতুন করে ৬৭ জনের শরীরে করোনাভাইরাসের সংক্রমণ শনাক্ত হয়েছে। নতুন আক্রান্ত ব্যক্তিদের মধ্যে জয়পুরহাট সদর উপজেলায় ২১ জন, পাঁচবিবি উপজেলায় ২৬ জন, ক্ষেতলাল উপজেলায় ১০ জন, আক্কেলপুর উপজেলায় ৯ জন ও কালাই উপজেলায় একজন রয়েছেন।

সিভিল সার্জন কার্যালয়ের এক কর্মকর্তা জানান, নতুন ৬৭ জনের মধ্যে ২১ জন পুলিশ ও তিনজন র‌্যাব সদস্য রয়েছেন। এ ছাড়া স্বাস্থ্যকর্মীও আছেন। আক্রান্ত ব্যক্তিদের মধ্যে তেমন কোনো উপসর্গ নেই।

জানতে চাইলে জয়পুরহাটের পুলিশ সুপার (এসপি) সালাম কবির প্রথম আলোকে বলেন, কোভিড শনাক্ত হওয়া ২১ জন পুলিশ সদস্যের সবাই ভালো রয়েছেন। এর আগে দুজন পুলিশ সদস্যের করোনা শনাক্ত হয়েছিল। তাঁরা দুজনই সুস্থ হয়েছেন।

জয়পুরহাটের সিভিল সার্জন সেলিম মিঞা প্রথম আলোকে জানান, গতকাল রাতে আসা নমুনা পরীক্ষার প্রতিবেদনে মোট ৭৯ জনের পজিটিভ এসেছে। এর মধ্যে ১২ জনের ফলোআপ ফল রয়েছে। অর্থাৎ নতুন করে ৬৭ জনের করোনা শনাক্ত হয়েছে। জেলায় এক দিনের সর্বোচ্চ সংখ্যা এটি।

বিজ্ঞাপন
মন্তব্য পড়ুন 0