বিজ্ঞাপন

ফরিদপুরের বোয়ালমারী উপজেলার চতুল গ্রামের আমিনুল ইসলাম (৩৫) ঢাকায় একটি বেসরকারি প্রতিষ্ঠানে চাকরি করেন। থাকেন মোহাম্মদপুরে। আজ সকাল ১০টার দিকে একটি ভাড়া করা প্রাইভেটকারে স্ত্রী ও শিশুসন্তানকে নিয়ে তিনি পাটুরিয়া ঘাটে আসেন। প্রাইভেটকারের ভাড়া দিয়ে হেঁটে ফেরির কাছে যাওয়ার সময় কথা হলে তিনি বলেন, ‘দূরপাল্লার বাস বন্ধ। সড়কে প্রচণ্ড চাপ। ফেরিঘাটেও যাত্রীর ভিড়।

সবকিছু মিলিয়ে এই ঝক্কি-ঝামেলা এড়াতে আজ বাড়ি যাচ্ছি।’

গত মঙ্গলবার পোশাক কারখানাসহ বিভিন্ন কারখানা ছুটি দেওয়ায় গতকাল বুধবার পাটুরিয়া ঘাটে যাত্রীদের উপচে পড়া ভিড় ছিল। যাত্রীদের ভোগান্তির বিষয়টি বিবেচনা করে ১৭টি ফেরি সব কটিই চালু রাখা হয়। এরপরও যাত্রীদের পারাপার করতে হিমশিম অবস্থায় পড়ে ফেরি কর্তৃপক্ষ। তবে আজ সেই পরিস্থিতি নেই। যাত্রীরা ঘাটে আসা মাত্রই ফেরিতে ওঠে নদী পার হচ্ছেন।

এদিকে আজ সকাল থেকে মানিকগঞ্জে ঢাকা-আরিচা মহাসড়কেরও যাত্রী ও যানবাহনের চাপ নেই। লোকাল বাসে করে স্বাভাবিক অবস্থার মতো যাত্রী পাটুরিয়া যাচ্ছেন।

বিআইডব্লিউটিসির আরিচা কার্যালয়ের উপমহাব্যবস্থাপক (বাণিজ্য) জিল্লুর রহমান বলেন, আজ যাত্রী ও ব্যক্তিগত গাড়ির চাপ নেই। এ কারণে পণ্যবাহী গাড়িগুলো পারাপার করা হচ্ছে। পাশাপাশি ঘাটে আসা যাত্রীদের পারাপার করা হচ্ছে।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন