বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

খুন হওয়া ইজিবাইকচালক সোবাহান খলিফার বাড়ি তিমিরকাঠি এলাকায়। শনিবার সকালে ষাটপাকিয়া এলাকার সড়কের পাশে তাঁর লাশ দেখে এলাকাবাসী নলছিটি থানায় খবর পাঠায়। পরে পুলিশ সেখানে গিয়ে তাঁরা লাশের পাশে একটি মুঠোফোন পায়। ওই মুঠোফোন দিয়ে পরিবারের কাছে ফোন করে লাশের পরিচয় জানতে পারে পুলিশ। লাশের গলায় মাফলার প্যাঁচানো ছিল।

পুলিশ ও প্রত্যক্ষদর্শী সূত্র জানায়, সোবাহান প্রতিদিনের মতো গতকাল শুক্রবার রাতে ইজিবাইক নিয়ে বাড়ি থেকে বের হন। সর্বশেষ রাত সাড়ে আটটার দিকে স্বজনদের সঙ্গে মুঠোফোনে তাঁর কথা হয়। স্বজনেরা জানান, রাতের কোনো এক সময় তাঁকে হত্যা করে লাশ রাস্তার পাশে ফেলে রেখে চলে যায় দুর্বৃত্তরা। তাঁর ইজিবাইকটি পাওয়া যায়নি।

এ বিষয়ে নলছিটি থানায় ওসি মু. আতাউর রহমান বলেন, তাঁকে শ্বাসরোধ করে হত্যা করে রাস্তার পাশে লাশ ফেলে রেখে ইজিবাইক নিয়ে চলে গেছে দুর্বৃত্তরা। সুরতহাল প্রতিবেদন তৈরি করে সোবাহান খলিফার লাশ ময়নাতদন্তের জন্য ঝালকাঠি সদর হাসপাতালে পাঠানো হবে। এ বিষয়ে তদন্ত করে আইনানুগ ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন