default-image

ঝালকাঠিতে করোনা পরিস্থিতিতে চলমান লকডাউনের মধ্যে কর্মহীন হয়ে পড়া মানুষকে ৫ টাকায় ১০টি পণ্য দিচ্ছে জনহিতৈষী সংগঠন স্বপ্নপূরণ সমাজকল্যাণ সংস্থা (এসএসএস)। গত বছরের মার্চ মাস থেকেই সংগঠনটি ‘৫ টাকার কেনাকাটা’ শীর্ষক মধ্যবিত্তদের জন্য মানবিক বাজারের ব্যবস্থা করে যাচ্ছে। পৌর শহরের কৃষ্ণকাঠিতে ব্যতিক্রমী এ ব্যবস্থার আয়োজন করেছে এ সংস্থা।

খোঁজ নিয়ে জানা যায়, মাত্র ৫ টাকার একটি কুপন কেনার মাধ্যমে নিম্নমধ্যবিত্ত পরিবারগুলো ইফতার ও নিত্যপ্রয়োজনীয় পণ্যসামগ্রী নিতে পারে স্বপ্নপূরণ সমাজ কল্যাণ সংস্থার মাধ্যমে। করোনা মহামারিতে যাঁরা কর্মহীন হয়ে পড়েছেন, না পারছেন কারও কাছে চাইতে, না পারছেন নিত্যদিনের খাবার জোগাড় করতে, তাঁদের জন্য স্বপ্নপূরণ সমাজকল্যাণ সংস্থার এ উদ্যোগ। পরিবারগুলো কোনো দান ও অনুগ্রহ নয়, বরং স্বল্প টাকায় এ সামগ্রী কিনে নিতে পারছে।

৫ টাকার টোকেন নিলে প্রত্যেককে এক কেজি তেল, দুই কেজি পেঁয়াজ, এক কেজি মসুরের ডাল, দুই কেজি ছোলা, এক কেজি চিনি, আধা কেজি মুড়ি, এক কেজি খেজুর, তিন কেজি আলু, এক কেজি চিড়া, পাঁচ কেজি চাল ও একটি মাস্ক দেয় সংস্থাটি।
বিজ্ঞাপন

স্বপ্নপূরণ সমাজকল্যাণ সংস্থার সভাপতি রিয়াজ খান জানান, ৫ টাকার টোকেন নিলে প্রত্যেককে এক কেজি তেল, দুই কেজি পেঁয়াজ, এক কেজি মসুরের ডাল, দুই কেজি ছোলা, এক কেজি চিনি, আধা কেজি মুড়ি, এক কেজি খেজুর, তিন কেজি আলু, এক কেজি চিড়া, পাঁচ কেজি চাল ও একটি মাস্ক দিয়ে থাকেন তাঁরা।

রিয়াজ খান বলেন, ‘এবার রমজানে ২০ জন ইমাম-মুয়াজ্জিনকে দিয়ে পাঁচ টাকার কুপনে ইফতার বিতরণ শুরু করেছি। ইতিমধ্যে ১০০ জনকে কুপনের মাধ্যমে এ সহায়তা দেওয়া হয়েছে। প্রত্যেক ক্রেতা হোম ডেলিভারি বা কুপন জমা দিয়ে তাঁদের ক্রয়কৃত পণ্য সংস্থা থেকে নিচ্ছেন। এ ছাড়া সংস্থার পক্ষ থেকে শহরের ৯৩টি মসজিদের অজুখানায় প্রতি মাসে ১টি সাবান এবং জনসচেতনতায় লিফলেট ও মাস্ক বিতরণ ধারাবাহিকভাবে চালিয়ে যাচ্ছে সংগঠনের কর্মীরা।’ তবে সংগঠনের সদস্যদের আক্ষেপ, আজ পর্যন্ত সরকারি কোনো সহায়তা তারা পাননি।

গত বছরও করোনা মহামারিতে ‘পাঁচ টাকার কেনাকাটা’ কর্মসূচির মাধ্যমে ৫০০ পরিবারকে সহায়তা করে সর্বমহলে প্রশংসিত হয়েছিল সংগঠনটি।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন