default-image

নীলফামারীর ডোমার উপজেলার চাকধাপাড়া গ্রামে আজ রোববার ছুরির আঘাতে বেসরকারি সংস্থার (এনজিও) দুজন কর্মী আহত হয়েছেন। এক হাজার টাকা চেয়ে না পাওয়ায় মাদকাসক্ত এক যুবক তাঁদের ছুরিকাঘাত করেন বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে।

বিজ্ঞাপন

আহত দুজন হলেন বেসরকারি সংস্থা আশার সোনারায় শাখার কর্মী মো. আলিফ হোসেন (৩০) ও মো. সিরাজুল ইসলাম (৩৫)। তাঁদের প্রথমে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নেওয়া হয়। সেখান থেকে তাঁদের রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

মোস্তাকিন মাদকাসক্ত। কয়েক দিন আগে তিনি মাদক মামলায় জেল খেটে বেরিয়েছেন। তিনি পলাতক। তাঁকে গ্রেপ্তারে বিভিন্ন স্থানে অভিযান চালানো হচ্ছে।
মো. মোস্তাফিজার রহমান, ওসি, ডোমার থানা

প্রত্যক্ষদর্শী কয়েকজন জানান, আজ দুপুরে আলিফ ও সিরাজুল চাকধাপাড়া গ্রামে ঋণের কিস্তি তুলতে যান। টাকা তোলার পর তাঁদের শাখা ব্যবস্থাপক তা নিয়ে কার্যালয়ে চলে যান। এ সময় বৃষ্টি শুরু হলে তাঁরা একটি ঘরে আশ্রয় নেন। সেখানে একই গ্রামের মোস্তাকিন ইসলাম (৩২) গিয়ে তাঁদের কাছে এক হাজার টাকা দাবি করেন। তা দিতে না চাইলে মোস্তাকিন ধারালো ছুরি দিয়ে তাঁদের এলোপাতাড়ি কুপিয়ে আহত করেন। চিৎকার শুনে আশপাশের লোকজন এগিয়ে গেলে মোস্তাকিন পালিয়ে যান। পরে পুলিশ গিয়ে ওই দুজনকে উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে যায়।

বিজ্ঞাপন

স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সটির জরুরি বিভাগের দায়িত্বরত চিকিৎসা কর্মকর্তা মো. তানভীর জোহা বলেন, ‘একজনের মাথায় ও একজনের হাতে ছুরির গভীর আঘাত ছিল। আমরা প্রাথমিক চিকিৎসা দিয়ে তাঁদের রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠিয়েছি।’

আশার সোনারায় শাখার ব্যবস্থাপক হামিদুল ইসলাম বলেন, এ ঘটনায় কর্তৃপক্ষের সঙ্গে আলোচনা করে আইনানুগ ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

জানতে চাইলে ডোমার থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. মোস্তাফিজার রহমান বলেন, ‘আমরা ৯৯৯–এ সংবাদ পেয়ে গিয়ে আহত ব্যক্তিদের উদ্ধার করে চিকিৎসার ব্যবস্থা করি। মোস্তাকিন মাদকাসক্ত। কয়েক দিন আগে তিনি মাদক মামলায় জেল খেটে বেরিয়েছেন। ঘটনায় ব্যবহৃত ছুরিটি উদ্ধার করেছি। তবে মোস্তাকিন পলাতক। তাঁকে গ্রেপ্তারে বিভিন্ন স্থানে অভিযান চালানো হচ্ছে।’

বিজ্ঞাপন
জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন