বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

র‌্যাব কমান্ডার আবদুল্লাহ আল মামুন জানান, জমেলা, সুমি ও শাহজালাল নামের তিনজনের লাশ বসতঘরে পাওয়া গেছে। এ সময় সুমির শিশুসন্তানকে গুরুতর আহত অবস্থায় উদ্ধার করে হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। লাশের পাশে ছুরি ও হাতুড়ি পাওয়া যায়। পরকীয়ার জেরে এ ঘটনা ঘটতে পারে বলে প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে।

দিঘর ইউনিয়ন পরিষদের (ইউপি) চেয়ারম্যান আবুল কালাম আজাদ জানান, শাহজালালের সঙ্গে সুমির সম্পর্ক ছিল। প্রায় ৬ মাস আগে শাহজালালের সঙ্গে সুমি পালিয়ে যান। পরে সুমিকে আবার ফিরিয়ে এনেছিলেন জয়নুদ্দিন।

টাঙ্গাইলের পুলিশ সুপার সরকার মোহাম্মদ কায়সারসহ র‍্যাব, পিবিআই ও সিআইডির কর্মকর্তারা ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন