মা ও স্ত্রীকে কুপিয়ে আত্মহত্যার চেষ্টা ছেলের

বিজ্ঞাপন
default-image

টাঙ্গাইলে তুচ্ছ ঘটনা নিয়ে এক যুবক মাকে কুপিয়ে হত্যার পর বিষপানে আত্মহত্যার চেষ্টা চালিয়েছেন বলে অভিযোগ উঠেছে। ঘটনার সময় নিজের স্ত্রীকেও কুপিয়ে আহত করেন তিনি।

বুধবার বিকেলে টাঙ্গাইল সদর উপজেলার করটিয়া ইউনিয়নের নামদারকুমুল্লি গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। নিহত নারীর নাম সেলিনা বেগম (৫০)। তিনি গ্রামের বাসিন্দা মো. বছির উদ্দিনের স্ত্রী।

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

পুলিশ জানায়, বছির-সেলিনা দম্পতির ছেলে মো. রাসেল (২৮) বুধবার দুপুরের খাবার গ্রহণের পর অসুস্থ বোধ করেন। এ অবস্থায় চিকিৎসকের পরামর্শ নিতে মা সেলিনা বেগম ও স্ত্রী খোদেজা বেগমকে সঙ্গে নিয়ে টাঙ্গাইল শহরে আসেন। চিকিৎসককে দেখানোর পর বিকেলে বাড়িতে ফিরে যান সবাই। এ সময় ছেলে রাসেল ও তাঁর স্ত্রী খোদেজাকে নিয়ে কিছু কথা বলেন সেলিনা বেগম। এতে রাসেল ক্ষিপ্ত হয়ে মা সেলিনাকে দা দিয়ে কোপাতে শুরু করেন। স্ত্রী খোদেজা বেগম এগিয়ে এলে তাঁকেও কুপিয়ে আহত করেন। চিৎকার শুনে স্থানীয় লোকজন এগিয়ে এলে রাসেল ঘরে ঢুকে পড়েন। ঘরে থাকা কীটনাশক পান করে আত্মহত্যার চেষ্টা চালান। স্থানীয় লোকজন তিনজনকেই উদ্ধার করে টাঙ্গাইল জেনারেল হাসপাতালে নিয়ে যান। সেখানে সেলিনা বেগমকে মৃত ঘোষণা করেন চিকিৎসক।

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

টাঙ্গাইল সদর পুলিশ ফাঁড়ির পরিদর্শক মোশারফ হোসেন বলেন, এ ঘটনায় নিহত নারীর স্বামী বছির উদ্দিন বাদী হয়ে মামলা করেছেন। এতে ছেলে রাসেলকে একমাত্র আসামি করেছেন তিনি। বর্তমানে রাসেল পুলিশ পাহারায় টাঙ্গাইল জেনারেল হাসপাতালে চিকিৎসাধীন।

বিজ্ঞাপন
মন্তব্য পড়ুন 0
বিজ্ঞাপন