বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

সংবাদ সম্মেলেনে লিখিত বক্তব্যে নূর এ আলম বলেন, ইউপি নির্বাচনে আওয়ামী লীগের প্রার্থী ও বর্তমান চেয়ারম্যান তোফাজ্জল হোসেন খান ওরফে তোফা নেতৃত্ব দিয়ে তাঁর (নূর এ আলমের) কর্মী–সমর্থকদের ওপর হামলা চালান। হামলায় অন্তত আটজন গুরুতর আহত হয়েছেন। মৈশা গ্রামের তোফাজ্জল নামের এক কর্মীকে বেধড়ক পিটিয়ে হাত-পা ভেঙে দেওয়া হয়েছে। আশঙ্কাজনক অবস্থায় তাঁকে ঢাকা পঙ্গু হাসপাতালে নেওয়া হচ্ছে। হামলার শিকার আরেকজনের মাথার খুলি ভেঙে ভেতরে ঢুকে পড়েছে। তাঁকেও ঢাকায় চিকিৎসা দেওয়া হয়েছে। তিনি এখন চোখে দেখতে পান না, তাঁর স্মৃতিশক্তি নষ্ট হয়ে গেছে। ১৫ ডিসেম্বর চর হুগড়া গ্রামের শফিকুল ইসলামের ছয় বছরের শিশুপুত্রকে লাঠি দিয়ে মাথায় আঘাত করা হয়েছে। এতে তার মাথা ফেটে যায়। এ ছাড়া আরও অনেককে নানাভাবে হুমকি দেওয়া হচ্ছে। ভোটারদের ভয়ভীতি দেখানো হচ্ছে।

স্বতন্ত্র প্রার্থীর প্রচারণায় বাধা, পোস্টার ছিঁড়ে ফেলা ও নির্বাচনী ক্যাম্প ভাঙচুরের অভিযোগ করা হয়েছে তোফাজ্জল হোসেনের বিরুদ্ধে। এসব অভিযোগের প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়ার জন্য টাঙ্গাইল সদর থানা ও নির্বাচন কার্যালয়ে লিখিত আবেদন জানিয়েছেন নূর এ আলম। তিনি সন্ত্রাসীদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিয়ে সুষ্ঠু নির্বাচনের পরিবেশ নিশ্চিত করার জন্যও প্রশাসনের প্রতি আহ্বান জানান।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন