বিজ্ঞাপন

মারা যাওয়া ওই তরুণের নাম চন্দন রায় (২২)। তিনি একই ইউনিয়নের সরদারপাড়া এলাকার কৃষ্ণচন্দ্র রায়ের ছেলে। তিনি কাঠমিস্ত্রি ছিলেন।

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, দুপুরে চন্দন রায় অন্য কাঠমিস্ত্রিদের সঙ্গে ঠিলামনি এলাকার রমেশ চন্দ্র রায়ের বাড়িতে টিনের ঘর তৈরির কাজ করছিলেন। ঘরের চালে উঠে ঢেউটিন লাগিয়ে তারকাটা মারছিলেন চন্দন রায়। ঘরের ওপর দিয়ে যাওয়া পল্লী বিদ্যুতের তারের সঙ্গে লেগে তিনি বিদ্যুৎস্পৃষ্টে গুরুতর আহত হন। পরে উদ্ধার করে বোদা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নেওয়া হলে কর্তব্যরত চিকিৎসক চন্দনকে মৃত ঘোষণা করেন।

বোদা থানার উপপরিদর্শক (এসআই) লিপন কুমার বসাক বলেন, আইনি প্রক্রিয়া শেষে লাশ পরিবারের সদস্যদের কাছে হস্তান্তর করা হবে। বিষয়টি তদন্ত করে দেখা হচ্ছে।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন