এপিবিএন সূত্রে জানা যায়, রোহিঙ্গা ক্যাম্পটির এইচ ব্লকে কয়েকজন রোহিঙ্গার ডাকাতির প্রস্তুতি নেওয়ার খবর পেয়ে এপিবিএনের সদস্যরা অভিযানে যান। পুলিশের উপস্থিতি টের পেয়ে ডাকাতেরা পালিয়ে যাওয়ার চেষ্টাকালে একটি দেশীয় এলজিসহ ১০ জনকে আটক করা হয়েছে।

১৬ এপিবিএনের অধিনায়ক ও পুলিশ সুপার মোহাম্মদ তারিকুল ইসলাম বলেন, আটক সবাই ডাকাত দলের সক্রিয় সদস্য। এর মধ্যে আটক আক্তার হোছেন হত্যা মামলার আসামি। এ ছাড়া আটক অন্যরা রোহিঙ্গা ক্যাম্প এলাকায় অপহরণ, ছিনতাই, চাঁদাবাজি, দস্যুতা, মাদকসহ বিভিন্ন অপরাধমূলক কর্মকাণ্ডের সঙ্গে জড়িত। আটক রোহিঙ্গাদের টেকনাফ থানায় হস্তান্তর করা হয়েছে। এ ঘটনায় মামলার প্রক্রিয়া চলছে।

অস্ত্রসহ আটক ১০ রোহিঙ্গাকে কক্সবাজার আদালতে পাঠানো হবে বলে জানিয়েছেন টেকনাফ মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তার দায়িত্বে থাকা পুলিশ পরিদর্শক (তদন্ত) আবদুল আলীম।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন