বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

টেকনাফ উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা চিকিৎসক টিটু চন্দ্র শীল প্রথম আলোকে বলেন, বিষয়টি খুবই দুঃখজনক। তাঁর হাসপাতাল থেকে এ ধরনের ঘটনা ঘটার কোনো সুযোগ নেই। হাসপাতালে যেসব সন্তানের প্রসব হয়, তাদের কর্তৃপক্ষের দায়িত্বে কয়েক ঘণ্টা পর্যবেক্ষণে রাখা হয়। যে ছেলেনবজাতকের লাশ উদ্ধার করা হয়েছে, সেটির নাভিও কাটা হয়নি।

টেকনাফ মডেল থানার পুলিশ পরিদর্শক (তদন্ত) আবদুল আলিম বলেন, নবজাতকের লাশটি ময়নাতদন্তের জন্য কক্সবাজার সদর হাসপাতালের মর্গে পাঠানোর প্রক্রিয়া চলছে।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন