বাঘা থানা সূত্রে জানা গেছে, মঙ্গলবার ভোররাতে পুলিশ খবর পায় উপজেলার পানিকামড়া এলাকা থেকে গাড়িতে করে বাঘা বাজার হয়ে নাটোরের লালপুরে ফেনসিডিল নেওয়া হবে। এরপর বাঘা থানার ইন্সপেক্টর (তদন্ত) মুহ. আবদুল করিম, এসআই হেলাল আল মামুন, এসআইআই রউফসহ কয়েকজন বাঘা বাজারের বঙ্গবন্ধু চত্বরে পাকা রাস্তার ওপর অবস্থান নেন। এ সময় বেশ কয়েকটি গাড়িতে তল্লাশি চালানো হয়। ভোররাত চারটার দিকে শ্যালো মেশিনচালিত একটি ট্রলি আসে। গাড়িটির চালককে থামতে বলা হলে তিনি গাড়ি রেখে পালানোর চেষ্টা করেন। পরে তাঁকে ধরে পালানোর কারণ জিজ্ঞেস করলে গাড়িতে ফেনসিডিল আছে বলে জানান তিনি। পরে গাড়িটির চালকের আসনে লম্বা সিটের নিচ থেকে তিনটি প্লাস্টিকের বস্তায় মোট ৩৪১ বোতল ফেনসিডিল পাওয়া যায়। এগুলোর আনুমানিক মূল্য ৬ লাখ ৮২ হাজার টাকা বলে জানিয়েছে পুলিশ। ট্রলিটি জব্দ করে থানায় আনা হয়েছে।

বাঘা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা সাজ্জাদ হোসেন বলেন, আলাউদ্দিন মূলত মাদকদ্রব্য পরিবহন করে থাকেন। তিনি যাঁর কাছ থেকে এগুলো সংগ্রহ করে বিক্রির উদ্দেশে লালপুরে যাচ্ছিলেন, সেই মূল অভিযুক্ত জামাল উদ্দিন পলাতক আছেন। জামাল উদ্দিনকে গ্রেপ্তারে অভিযান চলছে। আর আলাউদ্দিনকে আজ সকালে আদালতের মাধ্যমে কারাগারে পাঠানো হয়েছে।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন