সখিনা ফাতেমি নগরের মোস্তফা-হাকিম কে জি অ্যান্ড হাইস্কুলের শিক্ষিকা। তাঁর স্বামী ইকবাল উদ্দিন চৌধুরী একটি বেসরকারি প্রতিষ্ঠানে প্রকৌশলী হিসেবে কর্মরত ছিলেন। তাঁদের বাসা নগরের ফিরোজ শাহ কলোনিতে। গ্রামের বাড়ি মিরসরাই।

নিহত দম্পতির পরিবার সূত্রে জানা যায়, সখিনা দুই মাসের অন্তঃসত্ত্বা ছিলেন। বুধবার তিনি চিকিৎসকের সঙ্গে দেখা করতে গিয়েছিলেন। অফিস শেষে স্বামী ইকবাল তাঁকে মোটরসাইকেলে করে সেখান থেকে নিয়ে ফিরছিলেন।

ঘটনার প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, লালখান বাজার এলাকায় উড়ালসড়ক থেকে নামছিলেন ওই দম্পতি। এ সময় পাশ থেকে কংক্রিটের ঢালাইবাহী একটি ট্রাক তাঁদের মোটরসাইকেলে ধাক্কা দেয়। দুজনই রাস্তায় পড়ে গেলে ট্রাকটি তাঁদের শরীরের ওপর দিয়ে চলে যায়। এতে ঘটনাস্থলেই দুজনের মৃত্যু হয়।

সরেজমিনে সন্ধ্যা ছয়টার দিকে লালখান বাজারে দেখা যায়, দুজনের মরদেহ সড়কের ফুটপাতের ওপর রাখা। পরে পুলিশ এসে মরদেহ দুটি চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে যায়। ঘটনাস্থলে নিহত সখিনার মামা হাবিবুর রহমান বিলাপ করছিলেন। সখিনার মুঠোফোন থেকে পথচারীরা ফোন করেছিলেন তাঁকে। খবর পেয়ে দ্রুত ঘটনাস্থলে ছুটে আসেন তিনি।

default-image

হাবিবুর রহমান প্রথম আলোকে বলেন, ‘এ ঘটনা অবিশ্বাস্য। সবকিছু ঠিকই ছিল। প্রথম সন্তানের অপেক্ষায় ছিলাম সবাই। একটা আনন্দ বয়ে যাচ্ছিল ঘরজুড়ে। কিন্তু কী হয়ে গেল? কীভাবে হয়ে গেল এ দুর্ঘটনা? এ ঘটনার বিচার চাই। মামলা করা হবে।’

দুর্ঘটনার পর ট্রাকটি জব্দ করেছে কোতোয়ালি থানা-পুলিশ। তবে চালককে আটক করা যায়নি। বিষয়টি নিশ্চিত করে কোতোয়ালি থানার পরিদর্শক (তদন্ত) চৌধুরী রেজাউল করিম প্রথম আলোকে বলেন, চালককে আটকের জন্য অভিযান চলছে।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন