জাবরহাট ইউপির চেয়ারম্যান মো. জিয়াউর রহমান বিষয়টি নিশ্চিত করে প্রথম আলোকে বলেন, ‘আমার জাবরহাট ইউনিয়নে কোনো নিখোঁজ ডায়েরি নেই। আমরা যখন ওই বিলে যাই, তখন ওই গলিত লাশটির মুখে দাড়ির আলামত পেয়েছি। এতে কঙ্কালটি পুরুষের বলে ধারণা করা হচ্ছে।’

ইউপির চেয়ারম্যান বলেন, কঙ্কালটি পুরুষের বলে ধারণা করা হচ্ছে।

পীরগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা জাহাঙ্গীর আলম বলেন, এ ব্যাপারে পীরগঞ্জ থানায় একটি অস্বাভাবিক মৃত্যুর (ইউডি) মামলা রেকর্ড করা হবে। ওই কঙ্কাল ময়নাতদন্তের জন্য আজ বিকেলে ঠাকুরগাঁও আদালতের মাধ্যমে মর্গে পাঠানো হয়েছে। এখনই ওই কঙ্কালের ব্যাপারে কিছুই বলা যাচ্ছে না। ময়নাতদন্তের প্রতিবেদন আসার পরই সব বলা যাবে।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন