default-image

ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনের পক্ষে-বিপক্ষে জনমত যাচাইয়ের জন্য বরিশালে ‘গণভোট সংগ্রহ’ কর্মসূচি চলছে। বরিশালের বিক্ষুব্ধ ছাত্র-জনতার ব্যানারে নগরের অশ্বিনী কুমার টাউন হলের সামনে ১৪ মার্চ থেকে এই কর্মসূচি পালন করা হচ্ছে। আরও চার দিন এই কর্মসূচি অব্যাহত থাকবে বলে আয়োজকেরা জানিয়েছেন।

কারা অভ্যন্তরে লেখক মুশতাকের মৃত্যুর পর থেকেই বরিশালের বিক্ষুব্ধ ছাত্র–জনতার ব্যানারে আন্দোলন শুরু হয়। তাঁরা কার্টুনিস্ট কিশোরের নামে করা মামলা প্রত্যাহার, খুলনায় গ্রেপ্তার শ্রমিকনেতা রুহুল আমিনের মুক্তিসহ ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে গ্রেপ্তার সবার নিঃশর্ত মুক্তির দাবিতে আন্দোলন করছেন। এরই ধারাবাহিকতায় জনগণ সত্যিই ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন চায় কি না, তা যাচাইয়ের লক্ষ্যে ১৪ মার্চ থেকে গণভোট সংগ্রহ শুরু করে।

বিক্ষুব্ধ ছাত্র-জনতা নামে এই উদ্যোগের সংগঠক সুজয় শুভ বলেন, বরিশালের বিভিন্ন প্রগতিশীল ছাত্রসংগঠন, শিক্ষার্থী, শিল্পী, কবি এবং সচেতন নাগরিকদের অংশগ্রহণে প্রতিষ্ঠিত ‘বরিশালের বিক্ষুব্ধ ছাত্র-জনতা’। যত দিন ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন নামের নিবর্তনমূলক আইনটি বাতিল না হবে, তত দিন তাঁরা আন্দোলন চালিয়ে যাবেন।

আয়োজকেরা আরও জানান, প্রতিদিন বেলা ১১টা থেকে অশ্বিনী কুমার হল চত্বরে এই গণভোট সংগ্রহ চলছে। এতে প্রতিদিন শ্রমিক-কৃষক-ছাত্র-চাকরিজীবীসহ বিভিন্ন শ্রেণি-পেশার মানুষ উপস্থিত হয়ে স্বতঃস্ফূর্ত গণভোটে অংশ নিচ্ছেন। সামনে আরও চার দিন গণভোট সংগ্রহ করা হবে। গণভোট সংগ্রহ শেষে গণভোটের গণরায় ঘোষণা করা হবে। তাঁরা জানান, অনলাইনেও গণভোটে অংশ নেওয়ার ব্যবস্থা রাখা হয়েছে।

বিজ্ঞাপন
জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন