default-image

রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রকৌশল অনুষদের ৩ কৃতী শিক্ষক ও ৩৩ জন শিক্ষার্থী ‘ডিনস অ্যাওয়ার্ড-২০২০’ পেয়েছেন। সোমবার বেলা ১১টায় ড. এম এ ওয়াজেদ মিয়া একাডেমিক ভবনে নবনির্মিত প্রকৌশল অনুষদ গ্যালারিতে শিক্ষক ও শিক্ষার্থীদের এই পুরস্কার তুলে দেওয়া হয়।

অনুষ্ঠানে বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য এম আবদুস সোবহান প্রধান অতিথি, বিশেষ অতিথি হিসেবে সহ–উপাচার্য আনন্দ কুমার সাহা ও অধ্যাপক চৌধুরী মো. জাকারিয়া উপস্থিত ছিলেন। প্রকৌশল অনুষদের অধিকর্তা অধ্যাপক মো. একরামুল হামিদের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে সাবেক অধিকর্তা অধ্যাপক আবু বকর মো. ইসমাইল স্বাগত বক্তৃতা করেন।
অনুষ্ঠানে অনুষদভুক্ত পাঁচটি বিভাগের ৩ শিক্ষক ও ৩৩ জন শিক্ষার্থীকে ডিনস অ্যাওয়ার্ডের সনদ ও সম্মাননা স্মারক তুলে দেন উপাচার্য। অনুষদভুক্ত শিক্ষকদের ২০১৯ সালে প্রকাশিত গবেষণা প্রবন্ধের ইমপ্যাক্ট ফ্যাক্টরের ভিত্তিতে এবং স্নাতক পর্যায়ের শিক্ষার্থীদের প্রতি বর্ষের পরীক্ষায় ৩ দশমিক ৭৫ বা তার বেশি সিজিপিএ অর্জনের স্বীকৃতিতে এই পুরস্কার দেওয়া হয়।

বিজ্ঞাপন

অ্যাওয়ার্ডপ্রাপ্ত শিক্ষকেরা হলেন ফলিত রসায়ন ও রসায়ন প্রকৌশল বিভাগের অধ্যাপক মো. ইব্রাহীম হোসেন মণ্ডল, ম্যাটেরিয়ালস সায়েন্স অ্যান্ড ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক মির্জা হুমায়ূন কবীর ও ইলেকট্রিক্যাল অ্যান্ড ইলেকট্রনিক ইঞ্জিনিয়ারং বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক জাকের হোসেন।

অ্যাওয়ার্ডপ্রাপ্ত শিক্ষার্থীরা হলেন ফলিত পদার্থবিজ্ঞান ও ইলেকট্রনিক ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের পারভেজ রানা, ফলিত রসায়ন ও রসায়ন প্রকৌশল বিভাগের মোছা. মাহমুদা আকতার ও টনি চৌধুরী, কম্পিউটার সায়েন্স অ্যান্ড ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের মো. নাদিম মাহমুদ, মো. আরিফুজ্জামান, অরূপ সরকার, মো. নাহিদ আহসান, রকিব শেখ ও মোছা. সাহালা রহমান, ইনফরমেশন অ্যান্ড কমিউনিকেশন ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের মো. আমিরুল ইসলাম, মোহাম্মদ আলী, রোকসানা ইয়াসমিন, মো. বিপুল ইসলাম, রশিদ মিঞা, তাহমিনা তাসফিয়া, মোছা. সাবিকুন্নাহার, মো. জাভিদ হাসান, মো. মেহেদী হাসান, সুস্মিতা পাল, শামিম মাহমুদ, শরিফুল ইসলাম, বকুল চন্দ্র রায় ও মো. আবদুর রহমান আল মাহাদী, ম্যাটেরিয়ালস সায়েন্স অ্যান্ড ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের সোহিলী ফেরদৌস, বন্যা রানী ও মাহফুজা রহমান, ইলেকট্রিক্যাল অ্যান্ড ইলেকট্রনিক ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের আমান উল্লাহ, মো. ইসলাহুর রহমান, মো. আরিফুল রহমান, শেখ হাসিব চেরাগী, রুবায়া খাতুন, শাকিল আহমেদ ও সুমন আহমেদ।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে উপাচার্য এম আবদুস সোবহান বলেন, ‘আমাদের গবেষণা বরাদ্দে সীমাবদ্ধতা আছে, কিন্তু ভালো গবেষণা করতে বরাদ্দের পাশাপাশি গবেষণায় আগ্রহ থাকতে হবে। বিজ্ঞান, প্রকৌশল, ভূ-বিজ্ঞান ও জীববিজ্ঞান বিষয়ে গবেষণার পাশাপাশি কলা, বাণিজ্য, সামাজিক বিজ্ঞান বিষয়েও গবেষণা বাড়াতে হবে।’ জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের স্বপ্নের সোনার বাংলা বিনির্মাণে গবেষকদের আরও নিষ্ঠা ও আন্তরিকতার সঙ্গে কাজ করার আহ্বান জানিয়েছেন তিনি।

কম্পিউটার সায়েন্স অ্যান্ড ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের প্রভাষক জাকিয়া জিনাত চৌধুরীর সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানে তিনজন শিক্ষক সরাসরি ও শিক্ষার্থীরা জুমের মাধ্যমে যুক্ত ছিলেন। এ সময় বিভিন্ন অনুষদের অধিকর্তা, প্রকৌশল অনুষদের বিভিন্ন বিভাগের সভাপতি ও শিক্ষকেরা উপস্থিত ছিলেন।

বিজ্ঞাপন
মন্তব্য পড়ুন 0