default-image

ভোলার মনপুরা দ্বীপ উপজেলায় মসজিদে মিলাদ মাহফিলের তবারক খাওয়ার পর অসুস্থ হয়ে পড়লে শিশুসহ ২১ জনকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। শুক্রবার সন্ধ্যা থেকে একের পর এক অসুস্থ পড়লে তাঁদের মনপুরা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়। এর মধ্যে তিন শিশুর অবস্থা খারাপ হওয়ায় তাদের ভোলা সদর হাসপাতালে নেওয়া হয়েছে।

হাসপাতালে ভর্তি হওয়া ব্যক্তিরা হলেন জালাল আহমেদ (৪০), আমির হোসেন (১৬), মো. নাহিদ ইসলাম (৫), মো. হাছনাইন আহমেদ (১৩), বায়েজিদ হাওলাদার (২), মেহেদী হাসান (১১), মো. তুহিন (২), শিহাব উদ্দিন (১৫), আবু বক্কর ছিদ্দিক (১৬), মো. মামুনুর রহমান (১৪), মো. সুমন (১৩), সোনিয়া আক্তার (১৭), আবদুল্লাহ (১০), ঝরনা বেগম (২৫), তামান্না আখতার (১৭), ফাতেমা বেগম (৪), মো. হোসেন (২১), সাব্বির আহমেদ (২), আবদুল আজিজ (৪০), আবদুল করিম (৪) ও আপন ইসলাম (৩)। তাঁদের সবার বাড়ি উপজেলার হাজিরহাট ইউনিয়নের চরফয়জুদ্দিন ও ভূঁইয়ারহাট গ্রামে।

মনপুরা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের আবাসিক চিকিৎসা কর্মকর্তা মশিউর রহমান বলেন, খাদ্যে বিষক্রিয়ার কারণে তাঁদের বমি ও পাতলা পায়খানা হয়েছে। শুক্রবার সন্ধ্যা সাতটা থেকে তাঁরা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি হতে শুরু করেন। রাত ১০টা পর্যন্ত ২১ জন ভর্তি হন। তাঁদের স্যালাইন ও ইনজেকশন দেওয়া হয়। তিন শিশুর অবস্থা একটু খারাপ হওয়ায় তাদের অভিভাবকেরা ভোলা সদর হাসপাতালে নিয়ে গেছেন।

বিজ্ঞাপন

হাসপাতালে ভর্তি হওয়া রোগী ও স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, উপজেলার হাজিরহাট ইউনিয়নের ভূঁইয়ারহাট এলাকার আবদুল মাজেদ ওরফে মাজু ব্যাপারীর স্ত্রী গত সপ্তাহে মারা যান। স্ত্রীর রুহের মাগফিরাত কামনায় শুক্রবার জুমার নামাজের পর স্থানীয় হাজি ইব্রাহীম জামে মসজিদ, ভূঁইয়ারহাট জামে মসজিদ ও জাফর উল্লাহ চৌধুরী জামে মসজিদে মিলাদ ও দোয়া মাহফিলের আয়োজন করা হয়। মিলাদ মাহফিল শেষে মুসল্লিদের হাতে তবারক হিসেবে মিষ্টিজাতীয় খাদ্য (গজা বা খুরমা) দেওয়া হয়। এসব তবারক খাওয়ার পর থেকে সবার পেট ফুলে ওঠে। অনেকের পেটে ব্যথা, পাতলা পায়খানা ও বমি শুরু হয়। অনেকে স্থানীয়ভাবে চিকিৎসা নিয়েছেন। যাঁদের অবস্থা খারাপ হয়েছে, তাঁরা মনপুরা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি হয়েছেন।

মনপুরা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) মো. সেলিম মিয়া বলেন, খবর পেয়ে তিনি রাতেই হাসপাতালে গিয়ে খোঁজখবর নিয়েছেন। পচা–বাসি খাবার যাঁরা বিক্রি করেছেন, তাঁদের বিরুদ্ধে প্রশাসন ভোক্তা অধিকার আইনে ব্যবস্থা নেবে।

মন্তব্য পড়ুন 0