default-image

সিলেটের গোলাপগঞ্জ উপজেলায় তরুণীকে (১৮) ধর্ষণচেষ্টার অভিযোগে করা মামলায় এক পুরোহিতকে গ্রেপ্তার করে কারাগারে পাঠানো হয়েছে। গতকাল বৃহস্পতিবার দুপুরে তাঁকে আদালতের মাধ্যমে জেলা কারাগারে পাঠানো হয়।

কারাগারে পাঠানো পুরোহিতের নাম প্রাণ গোবিন্দ দাস ওরফে ফরেস্ট চৌহান (৪৬)। তিনি টাঙ্গাইলের দেলদুয়ার উপজেলার সিলিমপুর গ্রামের বাসিন্দা। প্রাণ গোবিন্দ সিলেটের গোলাপগঞ্জ উপজেলার একটি মন্দিরে পুরোহিত হিসেবে দায়িত্ব পালন করছিলেন।

পুলিশ, মামলার এজাহার ও স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, মন্দিরের পুরোহিত প্রাণ গোবিন্দ দাসের কাছে প্রায়ই ধর্মীয় শিক্ষা লাভের জন্য আসতেন এলাকার শিশু-কিশোর ও তরুণ-তরুণীসহ বিভিন্ন বয়সের হিন্দুধর্মের অনুসারীরা। মঙ্গলবার সন্ধ্যায় ওই তরুণী মন্দিরে গেলে স্থানীয় বাসিন্দা দীপঙ্কর দেব ও পুরোহিত প্রাণ গোবিন্দ দাস মিলে জরুরি কাজের কথা বলে মন্দিরের পাশে নিয়ে মুখে চেপে ধরে ধর্ষণের চেষ্টা করেন। এ সময় ওই তরুণী চিৎকার শুরু করলে আশপাশের লোকজন ও স্বজনেরা এগিয়ে এসে তাঁকে উদ্ধার করেন।

বিজ্ঞাপন

এ ঘটনায় তরুণী বাদী হয়ে বুধবার রাতে দুজনকে অভিযুক্ত করে মামলা করেন। পরে প্রাণ গোবিন্দ দাসকে রাতেই গ্রেপ্তার করে পুলিশ। অপর অভিযুক্ত দীপঙ্কর দেব পলাতক।

এ ব্যাপারে গোলাপগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোহাম্মদ হারুনূর রশীদ চৌধুরী বলেন, অভিযোগের পরিপ্রেক্ষিতে প্রাণ গোবিন্দ দাসকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। তাঁকে বৃহস্পতিবার দুপুরে আদালতের মাধ্যমে জেলা করাগারে পাঠানো হয়েছে। অভিযুক্ত অপরজনকে গ্রেপ্তার করতে অভিযান অব্যাহত আছে।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন