বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

পুলিশ জানায়, বিয়ের আশ্বাস দিয়ে এক তরুণীকে একাধিকবার ধর্ষণ করেন কাউন্সিলর আজাদ হোসেন মোল্লা। সর্বশেষ বৃহস্পতিবার রাতে বরিশাল নগরের কাশীপুরের মগরপাড়া এলাকায় ওই তরুণীকে ধর্ষণ করেন তিনি। এরপর ওই তরুণী আজাদ হোসেনকে বিয়ের জন্য চাপ দিলে তিনি বিয়ে করতে অস্বীকৃতি জানান। এরপর শুক্রবার বিকেলে নগরের বিমানবন্দর থানায় ওই তরুণী বাদী হয়ে ধর্ষণ মামলা করেন। মামলায় কাউন্সিলর আজাদ একমাত্র আসামি।

বিমানবন্দর থানার উপপরিদর্শক (এসআই) ও মামলার তদন্ত কর্মকর্তা সাইদুল ইসলাম জানান, মামলা হওয়ার খবর পেয়ে কাউন্সিলর আজাদ হোসেন মোল্লা আত্মগোপনে যাচ্ছিলেন। এ সময় গোপন সংবাদের ভিত্তিতে শুক্রবার সন্ধ্যায় বাকেরগঞ্জ উপজেলা সদর থেকে তাঁকে গ্রেপ্তার করা হয়।

ধর্ষণের শিকার ওই তরুণীকে বরিশাল মেট্রোপলিটন পুলিশের ভিকটিম সাপোর্ট সেন্টারে রাখা হয়েছিল। সন্ধ্যায় তাঁকে সেখান থেকে বরিশাল শের-ই-বাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের ওয়ান-স্টপ ক্রাইসিস সেন্টারে (ওসিসি) নেওয়া হয়েছে। সেখানে রেখে তাঁর চিকিৎসা ও মেডিকেল পরীক্ষা করা হবে।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন