default-image

এসএসসি পাস করা তরুণ মো. ফাহাদ (২১) বিদেশে যাওয়ার প্রস্তুতি নিচ্ছিলেন। স্বপ্ন ছিল বিদেশে গিয়ে রোজগার করে পরিবারের হাল ধরবেন। তাঁর সেই স্বপ্ন সড়কেই শেষ হয়ে গেল। গতকাল মঙ্গলবার রাতে ফেনীর সোনাগাজী উপজেলায় মোটরসাইকেল দুর্ঘটনায় তিনি মারা গেছেন।

নিহত ফাহাদ উপজেলার চর চান্দিয়া ইউনিয়নের উত্তর চর চান্দিয়া এলাকার সৌদিপ্রবাসী আবদুল আজিজের ছেলে। আবদুল আজিজের পরিবারে দুই মেয়ে। একমাত্র ছেলে ছিলেন ফাহাদ।

পরিবার ও স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, মঙ্গলবার সন্ধ্যায় ফুফাতো ভাই মোশারফ হোসেনের সঙ্গে মোটরসাইকেল মেরামত করার জন্য সোনাগাজী পৌর শহরে যান ফাহাদ। রাত সাড়ে ৯টার দিকে মোটরসাইকেলে করে ফেরার পথে পৌর শহরের তাকিয়া সড়কের মাথা এলাকায় বিপরীত দিক থেকে আসা তরমুজবোঝাই একটি কাভার্ড ভ্যানের সঙ্গে সংঘর্ষ হয়। এতে মোটরসাইকেল আরোহী ফাহাদ ও মোশারফ কাভার্ড ভ্যানের চাপায় পড়েন। আহত দুজনকে উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নেওয়া হলে কর্তব্যরত চিকিৎসক ফাহাদকে মৃত ঘোষণা করেন। আহত মোশারফ এখনো হাসপাতালে চিকিৎসাধীন।

বিজ্ঞাপন

আহত মোশারফ হোসেন প্রথম আলোকে বলেন, সব সময় হাসিমুখে থাকা ফাহাদের স্বপ্ন ছিল সৌদি আরবে গিয়ে পরিবারের হাল ধরে বাবাকে দেশে পাঠিয়ে দেবেন। বৃদ্ধ বয়সে বাবাকে আর কষ্ট করতে দেবেন না। ইতিমধ্যে ফাহাদ সৌদি আরবে যাওয়ার জন্য পাসপোর্ট, ভিসা ও মেডিকেল পরীক্ষা সম্পন্ন করে বিমানের টিকিটও কেটে রেখেছেন। কেবল করোনাভাইরাসের কারণে তাঁর বিদেশে যাওয়া বিলম্ব হচ্ছিল। কিন্তু সেই স্বপ্ন আর পূরণ হলো না। একটি দুর্ঘটনা কেড়ে নিল তাঁর স্বপ্ন।

সোনাগাজী মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোহাম্মদ সাজেদুল ইসলাম বলেন, ঘটনার পর কাভার্ড ভ্যানের চালককে আটক করা হয়েছে। জব্দ করা হয়েছে কাভার্ড ভ্যানটি। এ ঘটনায় গত রাতেই থানায় একটি মামলা হয়েছে।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন