তাজরীন ট্র্যাজেডির আট বছর আজ। ওই ঘটনায় ক্ষতিগ্রস্তদের পুনর্বাসনের দাবিতে জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে  শ্রমিকদের বিক্ষোভ
তাজরীন ট্র্যাজেডির আট বছর আজ। ওই ঘটনায় ক্ষতিগ্রস্তদের পুনর্বাসনের দাবিতে জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে শ্রমিকদের বিক্ষোভহাসান রাজা

তাজরীন ফ্যাশনসের অগ্নিকাণ্ডের আজ আট বছর হলো। ২০১২ সালের ২৪ নভেম্বর ঢাকার আশুলিয়ার নিশ্চিন্তপুরে কারখানাটির ১১২ জন শ্রমিক আগুনে পুড়ে মারা যান। আহত হন কয়েক শ মানুষ। সেই দুঃসহ স্মৃতি হৃদয় থেকে ভুলতে পারেনি অগ্নিকাণ্ডে হতাহত শ্রমিকদের পরিবার।

তাজরীনে অগ্নিকাণ্ডের আট বছর উপলক্ষে আজ মঙ্গলবার সকালে নিহত শ্রমিকদের স্বজন, আহত ব্যক্তি, বিভিন্ন শ্রমিক সংগঠনের নেতা–কর্মীরা কারখানার ফটকের সামনে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা জানান। এ সময় নিহত ব্যক্তিদের আত্মার মাগফিরাত কামনা ও তাঁদের উদ্দেশে নীরবতা পালন করা হয়।

শ্রদ্ধা নিবেদন শেষে তাজরীন ফ্যাশনসের ফটকের সামনে বিভিন্ন শ্রমিক সংগঠনের পক্ষ থেকে সংক্ষিপ্ত পথসভার আয়োজন করা হয়। সভা থেকে তাজরীনসহ পোশাকশিল্পে দুর্ঘটনার বিচার সম্পন্ন করার দাবি জানানো হয়।

বিজ্ঞাপন

বাংলাদেশ গার্মেন্টস শ্রমিক সংহতির সভাপ্রধান তাসলিমা আখতার বলেন, তাজরীনের ঘটনা নিছক কোনো দুর্ঘটনা নয়, এটা কাঠামোগত হত্যাকাণ্ড। পোশাকশিল্পে এ রকম অসংখ্য হত্যাকাণ্ডের ঘটনা ঘটছে। ঘটনার পর মামলা হয়, তদন্ত হয়, কিন্তু কোনো ঘটনার বিচার সম্পন্ন হয় না। যত দিন পর্যন্ত ন্যায়বিচার সম্পন্ন না হবে, দোষীদের শাস্তির আওতায় আনা না হবে, শ্রমিকের পক্ষে ন্যায়বিচার প্রতিষ্ঠা না হবে, তত দিন বলা যাবে না এ শিল্পের অগ্রগতি হয়েছে।

টেক্সটাইল গার্মেন্টস ওয়ার্কার্স ফেডারেশনের সভাপতি তপন সাহা বলেন, তাজরীন ফ্যাশনসে অগ্নিকাণ্ডের আট বছর পার হতে যাচ্ছে। এখনো নিহত শ্রমিকদের পরিবার ও আহত ব্যক্তিদের পুনর্বাসনের ব্যবস্থা করা হয়নি। উপযুক্ত ক্ষতিপূরণ না পেয়ে ক্ষতিগ্রস্ত শ্রমিক ও তাঁদের পরিবারের সদস্যরা মানবেতর জীবন যাপন করছেন।

গার্মেন্টস শ্রমিক ট্রেড ইউনিয়ন কেন্দ্রের সাংগঠনিক সম্পাদক খায়রুল মামুন বলেন, তাজরীনে আগুন লাগার পর কারখানা কর্তৃপক্ষ গেটে তালা লাগিয়ে শতাধিক শ্রমিককে পুড়িয়ে হত্যা করেছে। এ ঘটনার আট বছর পার হলেও দোষীদের শাস্তি নিশ্চিত করা হয়নি। বিচারহীনতার সংস্কৃতির কারণে মালিকপক্ষের অবহেলায় পোশাকশিল্পে একের পর এক দুর্ঘটনা ঘটছে। তিনি অবিলম্বে তাজরীনের ক্ষতিগ্রস্ত শ্রমিকদের পুনর্বাসন ও ক্ষতিপূরণ নিশ্চিত করার দাবি জানান।

মন্তব্য করুন