default-image

সাতক্ষীরা শহরের কাসেমপুর এলাকা থেকে পুলিশ এক ইজিবাইকচালক কিশোরের গলা কাটা লাশ উদ্ধার করেছে। নিহতের নাম মো. সালাউদ্দিন (১৫)। আজ শনিবার বেলা আড়াইটার দিকে শহরের কাসেমপুর এলাকার মালিপাড়া এলাকায় ওই কিশোরের বাড়ি থেকে লাশটি উদ্ধার করা হয়।

নিহত সালাউদ্দিনের বাবা শাহজাহান আলী প্রথম আলোকে বলেন, তাঁদের বাড়ি রসুলপুর এলাকায়। তাঁর ছেলে সালাউদ্দিন তাঁদের কাসেমপুর মালিপাড়ার বাড়ির চারটি ঘরের মধ্যে একটিতে থাকত। অন্য তিনটি ঘরে ভাড়াটিয়ারা বসবাস করে। আজ দুপুর সাড়ে ১২টার দিকে প্রতিবেশী শহীদুল সরদার তাঁকে বলেন, শহীদুলের ছেলে সাগর সরদার (১৫) মুঠোফোনে তাঁকে বলেছে, সালাউদ্দিনের সঙ্গে রাতে তার বিরোধ হয়েছে। এ সময় ছুরি দিয়ে সে (সাগর) সালাউদ্দিনের গলায় আঘাত করেছে। শহীদুল উদ্বিগ্ন কণ্ঠে শাহজাহান আলীকে বলেন, ‘সে মরে গেল কি না। তুমি একটু যেয়ে দেখ।’ এ কথা শুনে শাহজাহান আলী শহীদুলকে নিয়ে তাঁর মালিপাড়া বাড়িতে গিয়ে দেখেন তালা দেওয়া। তিনি তালা ভেঙে দেখেন, ঘরের মেঝেতে ছেলের নিথর দেহ। তার গলায় ছুরি দিয়ে কাটা ও বুকে জখমের চিহ্ন।

নাম প্রকাশ না করার শর্তে স্থানীয় একজন বাসিন্দা বলেন, সাগর ও সালাউদ্দিন দুজন ঘনিষ্ঠ বন্ধু। তারা মাদকসেবনের সঙ্গে জড়িত। মাদক সেবনের সময় বিরোধকে কেন্দ্রে করে সালাউদ্দিন খুন হয়েছে।

শাহজাহান আলী বলেন, তাঁর চিৎকারে প্রতিবেশীরা ছুটে আসেন। পরে সাতক্ষীরা থানায় তাঁরা খবর দেন।

বিজ্ঞাপন

নিহত সালাউদ্দিনের বোন রুমা খাতুন বলেন, গতকাল শুক্রবার রাত সাড়ে ১০টার দিকে তাঁর ভাই সালাউদ্দিন রসুলপুরের বাড়ি থেকে রাতের খাওয়া খেয়ে মালিপাড়ার বাড়িতে আসে। আজ দুপুরে শোনেন, তাঁর ভাই খুন হয়েছে। নিহত সালাউদ্দিনের ভাই আলাউদ্দিন বলেন, ‘সাগর একজন মাদকসেবী। সে এলাকায় মানুষজনকে নানাভাবে ভয়ভীতি দেখাত। তার কাছে সব সময় খুর ও ধারালো চাকু থাকত। তার ভয়ে কেউ তাকে কিছু বলত না। আমার ভাইকে খুন করেছে সাগর, তার ফাঁসি চাই।’

নাম প্রকাশ না করার শর্তে স্থানীয় একজন বাসিন্দা বলেন, সাগর ও সালাউদ্দিন দুজন ঘনিষ্ঠ বন্ধু। তারা মাদকসেবনের সঙ্গে জড়িত। মাদক সেবনের সময় বিরোধকে কেন্দ্রে করে সালাউদ্দিন খুন হয়েছে।

সাতক্ষীরা সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) বোরহানউদ্দিন জানান, নিহত সালাউদ্দিনের মরদেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য সাতক্ষীরা সদর হাসাপালের মর্গে পাঠানো হয়েছে। নিহত সালাউদ্দিনের গলায় কাটা ছাড়াও বুকে জখম ছিল। মাদক নিয়ে বিরোধ থেকে এ খুন সংঘটিত হতে পারে বলে ধারণা করা হচ্ছে। সাগর ছাড়াও এর সঙ্গে অন্য কেউ ছিল কি না, তা দেখতে পুলিশ তদন্তে নেমেছে। পাশাপাশি সালাউদ্দিনকে গ্রেপ্তারের চেষ্টা চলছে।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন