বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

এ ছাড়া সড়ক বিভাজকের বাগানে আলো জ্বালাতে ২৬৬টি খুঁটি স্থাপন করা হয়। প্রতিটি খুঁটিসহ আলো জ্বালাতে ব্যয় ধরা হয় ২৫ হাজার ৬২৭ টাকা। সব মিলিয়ে আলো জ্বালাতে খরচ পড়ে ৬৮ লাখ ১৬ হাজার ৭৮২ টাকা।

২০১৮ সালের জানুয়ারি মাসে প্রকল্পের কাজ শুরু হয়। বেশ কয়েকটি গুচ্ছে কাজ শেষ হয় চলতি বছরের জানুয়ারিতে। সড়ক বিভাজকসহ বাগান ও বাগানবাতি স্থাপনের কাজ করে নেশনটেক নামের একটি ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান। কিন্তু তিন মাস পর গত মে মাসের দিকে সড়ক বিভাজকের বাতি জ্বলা বন্ধ হয়ে যায়।

পৌরসভার নির্বাহী প্রকৌশলী সূত্র জানায়, বাতি জ্বালাতে বিদ্যুতের ভূগর্ভস্থ লাইনের মাধ্যমে সংযোগ দেওয়া হয়। কিন্তু পানি ঢুকে সেই সংযোগ নষ্ট হয়ে গেছে। নতুন করে তারের সংযোগ ওপর দিয়ে দেওয়ার প্রক্রিয়া চলছে। অচিরেই কাজ শুরু হবে।

পৌরসভার নির্বাহী প্রকৌশলী রবিউল ইসলাম বলেন, বাতির নকশার ত্রুটির বিষয়ে আগে থেকেই সংশ্লিষ্ট ঠিকাদার চিঠি দিয়ে আপত্তি জানিয়েছিলেন। তারপরও কাজ হয়েছে। বর্তমানে নতুন করে বাতি জ্বালাতে পৌরসভা থেকে আরও প্রায় পাঁচ লাখ টাকা খরচ হচ্ছে। তারসহ যাবতীয় উপকরণ কেনা হয়েছে। শিগগির কাজ শুরু হবে।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন