বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

এর আগে শনিবার রাতে পঞ্চগড় জেলার বোদা থেকে ইউপি সদস্য হত্যার প্রধান আসামি আরিফ মিয়াকে গ্রেপ্তার করে র‌্যাব। গতকাল রোববার দুপুরে নিজের কার্যালয়ে গ্রেপ্তারের বিষয়ে প্রেস ব্রিফিং করে রংপুরের র‌্যাব। রোববার সন্ধ্যায় তাঁকে গাইবান্ধা সদর থানা–পুলিশের কাছে হস্তান্তর করা হয়। আজ সোমবার বিকেলে সদর থানার পুলিশ পরিদর্শক (অপারেশন) জাহাঙ্গীর আলম অভিযুক্ত আরিফ মিয়াকে ১৬৪ ধারায় জবানবন্দি গ্রহণের জন্য আদালতে নিয়ে যান।

পুলিশ জানায়, ১১ নভেম্বর গাইবান্ধা সদর উপজেলার ১৩টি ইউনিয়নে নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়। এতে লক্ষ্মীপুর ইউনিয়নের ১ নম্বর ওয়ার্ডের সদস্য হিসেবে আবদুর রউফ নির্বাচিত হন। এ ছাড়া তিনি লক্ষ্মীপুর স্কুল ও কলেজের বাংলা বিষয়ের সহকারী শিক্ষক ছিলেন। গত শুক্রবার (১২ নভেম্বর) রাত সাড়ে ১১টায় লক্ষ্মীপুর বাজার থেকে বাড়ি ফেরার পথে হামলার শিকার হন রউফ। গুরুতর আহত অবস্থায় রউফকে উদ্ধার করে গাইবান্ধা জেনারেল হাসপাতালে নিয়ে গেলে চিকিৎসক তাঁকে মৃত ঘোষণা করেন।

এ ঘটনায় গত শনিবার রাতে নিহত আবদুর রউফের বড় বোন মমতাজ বেগম বাদী হয়ে গাইবান্ধা সদর থানায় একটি হত্যা মামলা করেন। মামলায় আরিফ মিয়াকে প্রধান আসামি করা হয়। এ ছাড়া একই ঘটনায় অজ্ঞাত ছয়-সাতজনকে আসামি করা হয়। ওই ঘটনার পর আরিফ মিয়া পলাতক ছিলেন।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন