default-image

দিনাজপুর সদর উপজেলায় চালককে হত্যা করে ইজিবাইক ছিনতাই করে নিয়ে গেছে একদল দুর্বৃত্ত। আজ বুধবার সকালে সদর উপজেলার ফাজিলপুর ইউনিয়নের ভাটিনা এলাকায় গর্ভেশ্বরী নদীর পাশের লিচুবাগান থেকে ইজিবাইকচালকের লাশ উদ্ধার করে পুলিশ।

ওই ইজিবাইকচালকের নাম মো. মুক্তার হোসেন (৩০)। তিনি ফাজিলপুর ইউনিয়নের হরিরামপুর গ্রামের খাইবার আলীর ছেলে। পুলিশ চিরিরবন্দর উপজেলার ভুসির বন্দর এলাকা থেকে তাঁর ইজিবাইকটি উদ্ধার করেছে। এর আগে ৯ অক্টোবর ফুলবাড়ী উপজেলার দৌলতপুর ইউনিয়নের বলিভদ্রপুর এলাকার ধানখেত থেকে এক ইজিবাইকচালকের লাশ উদ্ধার করেছিল পুলিশ। ওই চালকের ইজিবাইকটিও ছিনতাই করা হয়েছিল।

বিজ্ঞাপন

মুক্তার হোসেনের পারিবারিক সূত্রে জানা যায়, তিনি ঢাকায় একটি পোশাক কারখানায় কাজ করতেন। বছরখানেক আগে তিনি বাড়িতে ফিরে আসেন। এরপর থেকে ইজিবাইক চালানো শুরু করেন তিনি। গতকাল মঙ্গলবার দুপুরে তিনি ইজিবাইক নিয়ে বের হন। রাত আটটার সময় মুক্তার হোসেনের সঙ্গে তাঁর বাবার মুঠোফোনে কথা হয়। ওই মুঠোফোনে তিনি তাঁর বাবাকে জানিয়েছিলেন, তিনি বাড়ির কাছাকাছি আছেন। কিছুক্ষণ পরেই বাড়িতে আসবেন।

দিনাজপুর কোতোয়ালি থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. মোজাফফর হোসেন বলেন, আজ সকালে স্থানীয় লোকজনের কাছে জানতে পেরে ঘটনাস্থল থেকে ইজিবাইকচালক মুক্তার হোসেনের লাশ উদ্ধার করা হয়। পরে মুক্তারের লাশ ময়নাতদন্তের জন্য দিনাজপুর এম আবদুর রহিম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হয়। তিনি আরও জানান, মুক্তারের মাথায় আঘাতের চিহ্ন পাওয়া গেছে। লাশের পাশেই একটি কাঠের টুকরা পাওয়া গেছে। ধারণা করা হচ্ছে, যাত্রী সেজে দুর্বৃত্তরা ইজিবাইকে ওঠে। পরে সুবিধামতো ফাঁকা জায়গায় গিয়ে রাত ৯টা থেকে ১০টা মধ্যে তাঁকে হত্যা করে ইজিবাইকটি ছিনতাই করে যায় দুর্বৃত্তরা। যত দ্রুত সম্ভব ঘটনা তদন্ত করে অপরাধীদের আইনের আওতায় আনা হবে।

বিজ্ঞাপন
মন্তব্য পড়ুন 0