গ্রেপ্তার হওয়া তিন যুবক হলেন ফুলবাড়ী উপজেলার শিবনগর ইউনিয়নের হাজির মোড় এলাকার মো. আসিফ (১৯), একই গ্রামের সাগর ইসলাম (২২) ও চকচকা তেলীপাড়া গ্রামের মো. সোহাগ (২১)। রোববার দুপুরে পুলিশ তিন যুবককে আদালতের মাধ্যমে জেলা কারাগারে পাঠিয়েছে।

মামলার এজাহার সূত্রে জানা যায়, শনিবার সন্ধ্যায় কিশোরীকে তার বাড়ি থেকে কৌশলে ডেকে নিয়ে যান মো. আসিফ। আসিফ ওই কিশোরীর পূর্বপরিচিত। পরে স্থানীয় একটি বিদ্যালয়ের পাশের নির্জন স্থানে নিয়ে গিয়ে আসিফ ওই কিশোরীকে ধর্ষণ করেন। এ সময় মুঠোফোনে ওই ধর্ষণের ভিডিও ধারণ করেন আসিফের সহযোগী সাগর ও সোহাগ। পরে তাঁরা ওই কিশোরীকে ধর্ষণের ঘটনা কারও কাছে প্রকাশ করলে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ফেসবুকে ছড়িয়ে দেওয়ার হুমকি দেন।

শনিবার রাতে কিশোরীর পরিবার খোঁজাখুঁজির পর তাকে অসুস্থ অবস্থায় বিদ্যালয়ের পাশ থেকে উদ্ধার করে। পরে ওই কিশোরী পরিবারের কাছে ধর্ষণের শিকার হওয়ার বিষয়টি জানায়। এরপর স্থানীয় লোকজন ওই যুবকদের আটক করে পুলিশে খবর পাঠান। রাত ১২টায় পুলিশ ওই যুবকদের আটক করে থানায় নিয়ে যায়। ওই কিশোরীকে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে।

এ বিষয়ে ফুলবাড়ী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা আশ্রাফুল ইসলাম বলেন, খবর পেয়ে শনিবার রাতেই যুবকদের থানায় আনা হয়েছে। জিজ্ঞাসাবাদে ধর্ষণের কথা স্বীকার করেছেন তাঁরা। তাঁদের কাছ থেকে ধর্ষণের ভিডিও উদ্ধার করা হয়েছে। এ ঘটনায় ওই কিশোরীর বাবা থানায় মামলা করেছেন।