default-image

দিনাজপুরে কিশোর গ্যাংয়ের ২০ সদস্যকে আটকের পর সাতজনের নামে মামলা দিয়ে বাকিদের ছেড়ে দেওয়া হয়েছে। গতকাল শুক্রবার সন্ধ্যায় দিনাজপুর জিলা স্কু‌লের পেছ‌নে আড্ডা দেওয়ার সময় তাঁদের আটক করে নিয়ে যায় কোতোয়া‌লি থানা–পু‌লিশ। ওই সাতজ‌নের বিরু‌দ্ধে মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ আইনে মামলা হ‌য়ে‌ছে।

মামলায় শহরের স্টেশন রোডের ভাঙারি দোকানের কর্মচারী রতন হোসেন (২০), বাহাদুর বাজারের মাছ বিক্রেতা আবু বক্কর সিদ্দিক (২৩), কাপড় দোকানের কর্মচারী মনি হোসেন (২১), বিশাল আহমেদ (১৯) ও মো. শরিফ (২০), কাচারী এলাকার কম্পিউটার দোকানের কর্মচারী রকি ইসলাম (২১) ও পাটোয়ারী বিজনেস হাউসের কর্মচারী শান্ত ইসলামকে (১৮) আসামি করা হয়েছে।

গতকাল রাত ৯টার দিকে দিনাজপুর কোতোয়ালি থানায় এক প্রেস ব্রিফিংয়ে জেলার পুলিশ সুপার মো. আনোয়ার হোসেন বলেন, সন্ধ্যায় অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (অপরাধ) মোমিনুল ইসলামের নেতৃত্বে অভিযান চালানো হয়। আটক হন কিশোর গ্যাংয়ের সদস্যরা। তাঁরা মুঠোফোনে বিভিন্ন ধরনের জুয়া খেলতেন, মাদক সেবন করতেন। মানবিক বিবেচনায় ১৩ জনের অভিভাবকের কাছ থেকে মুচলেকা নিয়ে তাঁদের ছেড়ে দেওয়া হয়েছে। অপর সাতজনের বিরুদ্ধে মামলা হয়েছে।

বিজ্ঞাপন
জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন