বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

বাগছাসের পক্ষ থেকে প্রধানমন্ত্রী বরাবর স্মারকলিপি পাওয়ার বিষয়টি নিশ্চিত করে ইউএনও রেজাউল করিম বলেন, ‘আমি দুই কিশোরীর বাড়ি গিয়েছি। ইতিমধ্যে দুই কিশোরীকে ‘সাহসী কন্যা’ আখ্যা দিয়ে দুজনকে স্কুলে যেতে দুটি বাইসাইকেল দেওয়া হয়েছে। প্রশাসনের পক্ষ থেকে আমরা এই পরিবারের পাশে আছি।’

কিশোরীর পরিবার ও পুলিশ সূত্রে জানা যায়, গত ২৭ ডিসেম্বর রাতে হালুয়াঘাট থেকে বাড়ি ফেরার পথে দুই গারো কিশোরীকে দলবদ্ধভাবে ধর্ষণ করেন কয়েক বখাটে। এ ঘটনায় ৩০ ডিসেম্বর ১০ তরুণকে আসামি করে হালুয়াঘাট থানায় মামলা করা হয়। মামলার আসামিরা হলেন উপজেলার রিয়াদ মিয়া (২২), শরিফ উদ্দিন (২০), মিয়া হোসেন (২০), রুকন উদ্দিন (২১), রমজান আলী (২১), মো. কাওসার (২১), আছাদুল মিয়া (১৯), শফিকুল ইসলাম (২১), মো. মিজান মিয়া (২২) ও মামুন মিয়া (২০)। ঘটনার পর থেকে অভিযুক্ত ১০ তরুণ পলাতক। ঘটনার ৯ দিন পার হলেও কোনো আসামিকে গ্রেপ্তার করতে পারেনি পুলিশ।

হালুয়াঘাট থানার ওসি শাহীনুজ্জামান খান বলেন, ধর্ষণ ও ধর্ষণের সহযোগিতায় ১০ জনের বিরুদ্ধে মামলা হয়েছে। আসামিদের গ্রেপ্তারে পুলিশ কাজ করে চলেছে। আশা করা হচ্ছে দ্রুত সময়ের মধ্যে তাদের গ্রেপ্তার করা যাবে।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন