বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

পুলিশ ও লাইফগার্ড কর্মীরা লাশ দুটি উদ্ধার করে হাসপাতালের মর্গে নিয়ে যান। পুলিশ ও লাইফগার্ড কর্মীদের সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে, ইমন কক্সবাজার শহরের কলাতলী চন্দ্রিমা মাঠ এলাকার আবুল কালামের ছেলে। তবে তাঁর মৃত্যু কারণ এখন পর্যন্ত নিশ্চিত হওয়া যায়নি।

জেলা প্রশাসনের পর্যটন সেলের দায়িত্বে থাকা নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট সৈয়দ মুরাদ ইসলাম বলেন, দুই ঘণ্টার ব্যবধানে ভেসে আসে লাশ দুটি। লাশ দেখে মনে হয়েছে দু–এক দিন আগে মৃত্যু হয়েছে।

কক্সবাজার সদর মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) শেখ মুনীর উল গীয়াস প্রথম আলোকে বলেন, সৈকতে ভেসে আসা লাশ দুটি ময়নাতদন্তের জন্য কক্সবাজার সদর হাসপাতাল মর্গে রাখা হয়েছে। মৃত্যুর রহস্য উদ্‌ঘাটনের চেষ্টা চলছে।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন