বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হয়ে গাড়িচালকের মৃত্যুর খবরের সত্যতা নিশ্চিত করেন সেনবাগ উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা মতিউর রহমান। তিনি বলেন, লিটন স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের যেখানে থাকতেন, সেই কোয়ার্টারের জানালার রড কোনো কারণে বিদ্যুতায়িত হয়েছিল। রাতে লিটন জানালা বন্ধ করতে গেলে রডে বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হয়ে গুরুতর আহত হন। পরে স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে চিকিৎসক তাঁকে মৃত ঘোষণা করেন।

স্বাস্থ্য কর্মকর্তা মতিউর রহমান জানান, উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের বেশির ভাগ বৈদ্যুতিক খুঁটিতে আর্থিংয়ের ব্যবস্থা নেই। এ কারণে কয়েক মাস আগে তাঁরা হাসপাতালের এক্স-রে মেশিনে বিদ্যুৎ সংযোগ দিতে গিয়ে ভোগান্তিতে পড়েন। পরে প্রায় পাঁচ হাজার টাকা খরচ করে আর্থিংয়ের ব্যবস্থা করে মেশিনটি চালু করা হয়।

সেনবাগ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আবদুল বাতেন মৃধা প্রথম আলোকে বলেন, উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের কোয়ার্টারে বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হয়ে গাড়িচালকের মৃত্যুর ঘটনার পর পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছে। তবে এ ঘটনায় মৃতের পরিবারের পক্ষ থেকে কোনো অভিযোগ করা হয়নি।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন