বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, শুক্রবার বেলা সাড়ে ১১টার দিকে স্বতন্ত্র প্রার্থী আলী আকবর তাঁর সমর্থকদের নিয়ে ব্রাহ্মণখোলা গ্রামে নির্বাচনী প্রচার চালাচ্ছিলেন। একই সময় আওয়ামী লীগের প্রার্থী জাকির হোসেন ও তাঁর লোকজন নিয়ে নির্বাচনী প্রচার চালাতে মাঠে নামেন। দুই পক্ষের মিছিল সামনাসামনি হলে তাঁরা সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়েন। এতে উভয় পক্ষের আহত হয়েছেন অন্তত ১৫ জন।


স্বতন্ত্র প্রার্থী আলী আকবর বলেন, ‘নৌকা প্রতীকের প্রার্থী জাকির হোসেনের নেতৃত্বে তাঁর ভাই ও ভাতিজারা রামদা, হকিস্টিক ও লাঠিসোঁটা নিয়ে আমাদের ওপর অতর্কিতে হামলা চালায়। এতে আমি বাঁ চোখে, নাকে ও শরীরের বিভিন্ন স্থানে আঘাত পাই। আমার ১৫-১৬ জন কর্মী-সমর্থক আহত হয়েছেন।’


উল্টো অভিযোগ করে জাকির হোসেন বলেন, ‘আমি কোনো হামলা করিনি। নির্বাচনী মাঠে নৌকার বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্র চলছে। আমার বদনাম করার জন্য তারা পরিকল্পিতভাবে নাটক করছে। বরং আমি নির্বাচনী প্রচার করছিলাম। আলী আকবর বখাটে লোকজন নিয়ে আমার ওপর হামলা করেছে। আমার লোকজন আহত হয়েছে।’

শ্রীনগর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আমিনুল ইসলাম প্রথম আলোকে বলেন, দুই পক্ষ তাদের নির্বাচনী প্রচারে নামে। তাদের মিছিল মুখোমুখি হয়। সে সময় দুই পক্ষের মধ্যে পাল্টাপাল্টি ধাওয়া হয় এবং তারা সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়ে। এতে উভয় পক্ষের প্রার্থীসহ অনেকেই আহত হয়েছেন। পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে। এখনো কোনো পক্ষের অভিযোগ পাওয়া যায়নি। অভিযোগ পেলে তদন্ত সাপেক্ষে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন