default-image

কুষ্টিয়া সদর উপজেলার হরিনারায়ণপুর কাচারি মাঠের পাশের একটি পরিত্যক্ত শৌচাগারের মধ্যে থেকে ছয় বছরের মেয়েশিশুর লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। আজ রোববার দুপুরে নিখোঁজ হওয়ার পর এলাকায় মাইকিং করা হয়। পরে সন্ধ্যার পর তার লাশ মেলে একটি পরিত্যক্ত শৌচাগারের মেঝেতে।
শিশুটির নাম সানজিদা খাতুন। সে সদর উপজেলার হরিনারায়ণপুর এলাকার সোহাগ হোসেনের মেয়ে।

এলাকাবাসী ও পুলিশ সুত্র জানায়, সানজিদা দুপুরে বাড়ি থেকে বের হয়। এরপর আর ফিরে না আসায় পরিবারের লোকজন আশপাশে খোঁজা শুরু করেন। একপর্যায়ে মেয়ের সন্ধান চেয়ে বিকেলে হরিনারায়ণপুর বাজারে মাইকিং করেন বাবা সোহাগ হোসেন। এরপরও তার হদিস না পাওয়ায় খোঁজ চলতে থাকে।

সন্ধ্যার পর এলাকার কয়েকজন বাসিন্দা কাচারি মাঠের পাশের পরিত্যক্ত শৌচাগারে একটি শিশুর লাশ পড়ে থাকতে দেখেন। পরে সানজিদার পরিবারের লোকজন এসে তার লাশ শনাক্ত করেন। সানজিদার লাশটি শোয়ানো অবস্থায় মেঝেতে ছিল। তার হাত-পা মোড়ানো অবস্থায় পাওয়া গেছে। মাথায় ও শরীরে আঘাতের চিহ্ন রয়েছে।

খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে আসে কুষ্টিয়ার ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয় (ইবি) থানার পুলিশ। তারা লাশ উদ্ধারের পাশাপাশি সুরতহাল করে। লাশ দেখতে অনেক মানুষ ভিড় করে।

কুষ্টিয়ার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (সদর সার্কেল) আতিকুর রহমান বলেন, পরিত্যক্ত একটি শৌচাগার থেকে সানজিদা নামের এক শিশুর লাশ উদ্ধার করা হয়েছে। ময়নাতদন্তের জন্য লাশ হাসপাতালে পাঠানো হচ্ছে। প্রাথমিকভাবে বিষয়টি হত্যা বলে মনে হচ্ছে। ময়নাতদন্তের প্রতিবেদন পেলে বোঝা যাবে কীভাবে হত্যা করা হয়েছে।

বিজ্ঞাপন
মন্তব্য পড়ুন 0