বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

এলাকার কয়েকজন বাসিন্দা ও থানা-পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, তৃতীয় ধাপের ইউনিয়ন পরিষদ (ইউপি) নির্বাচনে কুল্লাগড়ায় ইউনিয়নে আওয়ামী লীগের সমর্থিত প্রার্থী সুব্রত সাংমা গতকাল বিকেল সাড়ে পাঁচটার দিকে বিপিনগঞ্জ বাজারে গণসংযোগ চালাচ্ছিলেন। এ সময় স্বতন্ত্র প্রার্থী আওয়ালের কয়েকজন সমর্থক এসে বাধা দেন। এ নিয়ে উভয় পক্ষের মধ্যে কথা–কাটাকাটি হয়। পরে স্থানীয় লোকজন তাঁদের থামিয়ে দেন। এর কিছুক্ষণ পর রাত পৌনে আটটার দিকে ওই বাজারে নির্বাচনী প্রচার চালানোর সময় আওয়ালের নেতৃত্বে লাঠিসোঁটা নিয়ে সুব্রত সাংমা ও তাঁর লোকজনের ওপর হামলা চালানো হয়। এ সময় সুব্রত সাংমা, তাঁর সমর্থক উপজেলা কৃষকলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক কামরুল ইসলাম, ইউনিয়ন কৃষকলীগের সাধারণ সম্পাদক জাহাঙ্গীর কবিরসহ চারজন আহত হন।

পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে। পরে স্থানীয় লোকজন তাঁদের উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে ভর্তি করে। এ ঘটনায় আজ সুব্রত সাংমার সমর্থক শামছুল হক বাদী হয়ে থানায় মামলা করেন।

সুব্রত সাংমা বলেন, ‘আওয়ালের নেতৃত্বে আমাকে গারো হিসেবে কটাক্ষ করে তিনিসহ তাঁর সমর্থক শামিম, বারেক, হান্নান, নূরে আলম, খোকন, হেকিমসহ ২৫ থেকে ৩০ জন দেশীয় অস্ত্রে সজ্জিত হয়ে হামলা চালিয়ে আহত করে। এ সময় কয়েকটি মোটরসাইকেল ভাঙচুর করা হয়।’

এ ব্যাপারে জানতে আওয়ালের সঙ্গে যোগাযোগ করা হলে তাঁর মুঠোফোন বন্ধ পাওয়া যায়।

দুর্গাপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) শাহনুর এ আলম জানান, এ ঘটনায় থানায় একটি মামলা হয়েছে। অভিযুক্ত ব্যক্তিদের গ্রেপ্তার করতে পুলিশ অভিযান চালাচ্ছে।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন