পরিবারের সদস্যরা বলছেন, মেয়েটিকে উদ্ধার করে প্রথমে মাধবপুর উপজেলা সদর স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নেওয়া হয়। পরে হবিগঞ্জের ২৫০ শয্যাবিশিষ্ট জেলা সদর হাসপাতালে নিয়ে এলেও দায়িত্বরত চিকিৎসক মুমূর্ষু অবস্থায় তাকে সিলেট এম এ জি ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠান।

মেয়েটির বাবা বলেন, গ্রামের এক তরুণ তাঁর মেয়েকে নানা সময় প্রেমের প্রস্তাব দিয়ে আসছিলেন। এতে সে রাজি না হওয়ায় সঙ্গে আরও পাঁচজনকে নিয়ে এ ঘটনা ঘটান।

স্থানীয় ইউনিয়ন পরিষদের সদস্য প্রথম আলোকে বলেন, গ্রামের এক তরুণ প্রায়ই মেয়েটিকে উত্যক্ত করতেন। এই একপর্যায়ে এই ছুরিকাঘাতের ঘটনা ঘটে।

মাধবপুর থানার পরিদর্শক (তদন্ত) কিবরিয়া হাসান প্রথম আলোকে বলেন, মেয়েটির শরীরের নানা স্থানে অসংখ্য ধারালো অস্ত্র দিয়ে কেটে দিয়েছে দুর্বৃত্তরা। বর্তমানে সে সিলেট মেডিকেলে চিকিৎসাধীন। সোমবার রাতে মেয়ের বাবা ছয়জনকে আসামি করে একটি মামলা করেছেন। পুলিশ বিষয়টি তদন্ত করছে।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন