default-image

সাতক্ষীরার দেবহাটায় হত্যার ভয় দেখিয়ে তৃতীয় শ্রেণির এক শিশুকে (৮) ধর্ষণের অভিযোগ পাওয়া গেছে। এ ঘটনায় সিরাজুল ইসলাম (৫২) নামের এক কাঠমিস্ত্রিকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। গতকাল বৃহস্পতিবার রাতে দেবহাটা উপজেলার দক্ষিণ পারুলিয়া গ্রামের বাড়ি থেকে তাঁকে গ্রেপ্তার করা হয়। আজ শুক্রবার সকালে আদালতের মাধ্যমে তাঁকে কারাগারে পাঠানো হয়েছে।

এর আগে গতকাল দুপুরে ওই শিশুর মা বাদী হয়ে সিরাজুল ইসলামের বিরুদ্ধে নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে ধর্ষণের অভিযোগে মামলা করেন।

পুলিশ ও শিশুর স্বজনেরা জানান, দেবহাটা উপজেলার একটি বিদ্যালয়ের তৃতীয় শ্রেণির ওই ছাত্রী প্রতিদিন তার সহপাঠীদের সঙ্গে পার্শ্ববর্তী গ্রামে তার ফুফুর বাড়িতে খেলা করতে যেত। এ সময় পথে প্রায়ই কাঠমিস্ত্রি সিরাজুল শিশুটিকে তাঁর আসবাবের দোকানে ডেকে নিয়ে নানাভাবে উত্ত্যক্ত করতেন। গত বুধবার সিরাজুল তাঁর দোকানে ওই শিশুকে ডেকে নিয়ে তাকে হত্যার ভয় দেখিয়ে ধর্ষণ করেন। পরে শিশুটি বাসায় ফিরে তার মা–বাবাকে ঘটনাটি জানালে তাঁরা গতকাল দুপুরে দেবহাটা থানা-পুলিশের শরণাপন্ন হন। পরে শিশুটির মা বাদী হয়ে মেয়েকে ধর্ষণের অভিযোগে সিরাজুলের বিরুদ্ধে থানায় মামলা করেন। পুলিশ মামলা দায়ের পর রাতেই সিরাজুলকে গ্রেপ্তার করে।

গত বুধবার সিরাজুল তাঁর দোকানে ওই শিশুকে ডেকে নিয়ে তাকে হত্যার ভয় দেখিয়ে ধর্ষণ করেন। পরে শিশুটি বাসায় ফিরে তার মা–বাবাকে ঘটনাটি জানালে তাঁরা গতকাল দুপুরে দেবহাটা থানা-পুলিশের শরণাপন্ন হন।

দেবহাটা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) বিপ্লব কুমার সাহা ঘটনা নিশ্চিত করে প্রথম আলোকে বলেন, গ্রেপ্তার সিরাজুল ইসলামকে আজ শুক্রবার সকালে আদালতের মাধ্যমে সাতক্ষীরা জেলা কারাগারে পাঠানো হয়েছে। সাতক্ষীরা সদর হাসপাতালে ওই শিশুর স্বাস্থ্য পরীক্ষা করানো হয়েছে।

বিজ্ঞাপন
জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন