default-image

টাঙ্গাইলের দেলদুয়ারে ক্লিনিকমালিক আনিসুর রহমান হত্যাকাণ্ডের ঘটনায় গ্রেপ্তার দুজনের দুই দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেছেন আদালত। বৃহস্পতিবার বিকেলে টাঙ্গাইলের সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট সুমন কুমার কর্মকার শুনানি শেষে এই আদেশ দেন।

রিমান্ডে নেওয়া দুজন হলেন— দেলদুয়ার উপজেলার লাউহাটি ইউনিয়নের হেরেম্বপাড়ার আবুল কালামের ছেলে রফিকুল ইসলাম ও তাঁর ভাতিজা রুবেল মিয়া। রফিকুল ইসলাম নিহত আনিসুর রহমানের স্ত্রীর বড় ভাই। বুধবার রাতে পুলিশ আনিস হত্যাকাণ্ডে জড়িত সন্দেহে ওই দুজনকে আটক করে। বৃহস্পতিবার সাত দিনের রিমান্ড চেয়ে তাঁদের আদালতে হাজির করা হয়। আদালত দুই দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন বলে জানান আদালত পরিদর্শক তানভীর হোসেন।

গত সোমবার ক্লিনিকে যাওয়ার কথা বলে বের হয়ে নিখোঁজ হন আনিসুর রহমান। মঙ্গলবার বিকেলে ধলেশ্বরী নদীর সংযোগ খালে বস্তাবন্দী অবস্থায় তাঁর গলাকাটা লাশ পাওয়া যায়। পুলিশ সন্ধ্যায় ঘটনাস্থলে পৌঁছে লাশ উদ্ধার করে।

মামলার তদন্ত কর্মকর্তা দেলদুয়ার থানার পরিদর্শক (তদন্ত) কামাল হোসেন জানান, আনিস লাউহাটি ইউনিয়নের হেরেম্বপাড়া গ্রামের কোরবান আলীর ছেলে। তিনি দীর্ঘদিন বিদেশে ছিলেন। কয়েক বছর আগে দেশে এসে লাউহাটি বাজারে জনসেবা ক্লিনিক নামের একটি ক্লিনিক প্রতিষ্ঠা করেন। পাশাপাশি তিনি জমি কেনাবেচার ব্যবসাও করতেন। হত্যাকাণ্ডের ঘটনায় নিহতের বড় মেয়ে মারুফা আক্তার বাদী হয়ে অজ্ঞাতনামা কয়েকজনকে আসামি করে বুধবার দেলদুয়ার থানায় মামলা করেন।

বিজ্ঞাপন
মন্তব্য পড়ুন 0