default-image

রাজশাহীতে পৈতৃক সম্পত্তি বিক্রির টাকা ভাগাভাগি নিয়ে দোতলা থেকে মাথায় ইট ফেলে বড় ভাইকে হত্যার অভিযোগে ছোট ভাইসহ চারজনের বিরুদ্ধে মামলা হয়েছে। গতকাল রোববার বিকেলে রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় উজ্জ্বল শেখ (৫০) নামের ওই ব্যক্তির মৃত্যুর পর রাতে মামলাটি করেন তাঁর স্ত্রী ডলি বেগম (৪০)।

উজ্জ্বল শেখ নগরের রানীনগর এলাকার মৃত বদর উদ্দিন শেখের ছেলে। হত্যা মামলায় প্রধান আসামি করা হয়েছে নিহত ব্যক্তির ছোট ভাই মো. সাফিকে (৩৭)। এ ঘটনায় অপর আসামিরা হলেন নিহত ব্যক্তির বড় ভাই মো. চান মিয়া (৫৭), তাঁর ছেলে মো. রবিন (২৫), সাফির স্ত্রী মোসা. পলি (৩৫)।

মামলার এজাহারে বলা হয়েছে, ৩ এপ্রিল রানীনগর এলাকায় পৈতৃক সম্পত্তি বিক্রির টাকা ভাগাভাগি নিয়ে ভাইদের মধ্যে কথা–কাটাকাটি হয়। এ সময় সাফি, চান মিয়াসহ আরও কয়েকজন উজ্জ্বলকে প্রাণনাশের হুমকি দেন। সেখান থেকে ভয়ে উজ্জ্বল শেখ পালিয়ে আসেন। পরদিন হত্যার উদ্দেশ্যে উজ্জ্বল শেখের ওপর দোতলা ভবন থেকে ইট ফেলেন ছোট ভাই সাফি। এতে মাথায় আঘাত পেয়ে উজ্জ্বল শেখ রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি হন।

বিজ্ঞাপন

পরে দফায় দফায় এই হাসপাতালে তাঁর চিকিৎসা চলে। এর মধ্যে ছাড়পত্র পেয়ে গত ১৩ এপ্রিল বাড়িতে আসেন উজ্জ্বল। তবে গতকাল রোববার তাঁর শারীরিক অবস্থার অবনতি ঘটলে হাসপাতালে নেওয়া হয়। সেদিন বেলা সাড়ে ৩টার দিকে হাসপাতালের ৪৩ নম্বর ওয়ার্ডে তিনি মারা যান। পরে এ ঘটনায় নিহত ব্যক্তির দুই ভাইসহ চারজনের নামে মামলা করা হয়।

নগরের বোয়ালিয়া মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) নিবারণ চন্দ্র বর্মন বলেন, অভিযুক্ত সাফি ৩ এপ্রিল পারিবারিক সম্পত্তির টাকা নিয়ে কলহের জেরে বাড়ির দোতলা থেকে বড় ভাইকে লক্ষ্য করে ইট নিক্ষেপ করেন। পরে তিনি গতকাল রোববার মারা যান। আর এ ঘটনায় ৩ এপ্রিল প্রাণনাশের হুমকি দিয়েছিলেন শাফিসহ আরও কয়েকজন। তাই চারজনের বিরুদ্ধে বাদী মামলা করেছেন। এ ঘটনায় আসামিদের গ্রেপ্তারে অভিযান চলছে।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন